• বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ই-পেপার

প্রধানমন্ত্রিত্বের দৌড়ে অনেক এগিয়ে লিজ ট্রাস


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৮ আগস্ট ২০২২, ২০:৩৮

নেতৃত্বের লড়াইয়ে সাবেক চ্যান্সেলর ঋষি সুনাককে অনেকটা পিছনে ফেলেছেন বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস। ক্ষমতাসীন কনজার্ভেটিভদের ওপর নতুন এক জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়েছে অনলাইনে বুধবার।

দ্য কনজার্ভেটিভ হোম ওয়েবসাইটে ৯৬১ জন দলীয় সদস্যের ওপর ওই জরিপ চালানো হয়েছে। তারা হয়তো পোস্টাল অথবা অনলাইনে ভোট দিয়েছেন অথবা দেবেন। এতে দেখা গেছে লিজ ট্রাসকে সমর্থন করছেন শতকরা ৬০ ভাগ সদস্য। আর সুনাককে ২৮ ভাগ। অন্যদিকে শতকরা ৯ ভাগ সদস্য বলেছেন তারা এখনো সিদ্ধান্ত নেননি। তাদেরকে এই জরিপে সমানভাগে ভাগ করে দেয়া হয়েছে। তাতেই ভারতীয় বংশোদ্ভূত সাবেক চ্যান্সেলর ঋষি সুনাকের চেয়ে ৩২ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন লিজ। সেপ্টেম্বরে সারাদেশে দলীয় সদস্যরা চূড়ান্ত দফায় ভোট দেবেন।

তাতে এই দুই প্রার্থীর মধ্যে যিনি সবচেয়ে বেশি ভোট পাবেন, তিনিই হবেন ক্ষমতাসীন কনজার্ভেটিভ দলের প্রধান এবং বৃটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী। এ খবর দিয়েছে ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআই।

ওই জরিপের নোটে বলা হয়েছে, এর আগের বার সিদ্ধান্তহীনদেরকে আমরা দুই ভাগে সমান ভাগ করে দিয়েছি। এবারও যদি তাই করা হয়, তাহলে লিজ ট্রাস পাবেন শতকরা ৬৪ ভাগ সমর্থন। আর সুনাক ৩২ ভাগ। তাতেও তাদের ব্যবধান থাকে শতকরা ৩২ ভাগ। ওপিনিয়াম, ইউগভ এবং আমাদের জরিপের যোগফল বলে যে, লিজ ট্রাস ৭০-৩০ এবং ৬০-৪০ ব্যবধানের মধ্যে বিজয়ী হতে পারেন। হতে পারে এর থেকে কিছুটা কমবেশি।

নতুন জরিপ করা হয়েছে ব্যালট পেপার ইস্যু করার পরে। তাতে কতজন সদস্য ভোট দিয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন ছিল। ওয়েবসাইট বলছে, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে শতকরা ৬০ ভাগ বলেছেন তারা ভোট দিয়েছেন। শতকরা ৪০ ভাগ বলেছেন, তারা ভোট দেননি। এ অবস্থায় দুই প্রার্থীই বৃটেনজুড়ে তাদের প্রচারণা অব্যাহত রেখেছেন। যারা এখনও ভোট দেননি তাদেরকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন তারা। এ উদ্দেশে তারা বুধবার উত্তর আয়ারল্যান্ডে পৌঁছেন।


poisha bazar