আজ সাকিব-মাহমুদউল্লাহ’র ভাগ্য নির্ধারণ


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৩ আগস্ট ২০২২, ১০:৩২

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ পাবেন আরেকটি সুযোগ নাকি সাকিব আল হাসান পুনরায় জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব পাবেন? তাদের ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ শনিবার।

মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে আজ দুপুরে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের বৈঠক রয়েছে। সেই বৈঠকেই চূড়ান্ত হয়ে যাবে সব। এরপর এশিয়া কাপের স্কোয়াডও ঘোষণা করবে বিসিবি। ঘোষণা করা হবে বাংলাদেশের নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের নামও।

বেটিং সাইট বেট উইনারের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান বেট উইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছেন সাকিব। কিন্তু সেই চুক্তির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় তাকে পুনরায় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক নির্বাচিত করা ঠিক হবে কিনা তা নিয়ে দ্বিধায় রয়েছে বিসিবি। এর পেছনে বড় কারণ ইনজুরি জর্জরিত দল।

কাজী নুরুল হাসান সোহান, লিটন দাস কেউ সুস্থ নন। তারা খেলতে পারবেন না এশিয়া কাপ। মাঠের পারফরম্যান্সে মাহমুদউল্লাহর অবস্থা ভালো নেই। তাই সিনিয়র হিসেবে সাকিবই ভরসা। কিন্তু বেটিং সাইটের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় সাকিবের ওপর বিসিবির একাংশ আস্থা রাখতে পারছেন না। বিশেষ করে বারবার বিসিবিকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলে দেওয়ায় সাকিবে ভরসা পাচ্ছেন না তারা।

তাই কেনো উপায় না দেখে মাহমুদউল্লাহকেই বেছে নিতে পারেন নীতিনির্ধারকরা। কিন্তু মাহমুদউল্লাহর পারফরম্যান্স এমন যে তাকে দলে রাখা নিয়েই আছে সংশয়। সাকিবের উটকো পরিস্থিতি তৈরি না হলে মাহমুদউল্লাহ এশিয়া কাপের জন্য বিবেচিতই হতেন না। কিন্তু নানা ঘটনায় তার কাঁধে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা আলোচনা হচ্ছে।

বিশেষ করে আলোচনাটা প্রায় এরকম, ‘সাকিবকে আরেকবার সুযোগ দেওয়ার পরিবর্তে মাহমুদউল্লাহকে সুযোগ দেওয়া ভালো। আপনি অন্তত নিশ্চিত থাকবেন মাঠে এবং মাঠের বাইরে আপনাকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে না। নিজেদের ইমেজ নিজেরা নষ্ট করবে না।’ – খুব আক্ষেপ করে বলছিলেন এক পরিচালক।

তবে বিসিবি চমক দেখাতে পারে সেই আগাম বার্তা দুদিন আগে নাজমুল হাসান দিয়ে রেখিছিলেন, ‘আমরা কিন্তু মোসাদ্দেককে এক ম্যাচের জন্য অধিনায়ক করেছিলাম। যে কোনো কিছুই কিন্তু হতে পারে।’
সোহান বা লিটন কেউ একজন ফিট হলে সাকিবকে অধিনায়ক করার চিন্তা থেকে সরে আসত বিসিবি। মাহমুদউল্লাহও দলে থাকতেন না প্রায় নিশ্চিত। কিন্তু ইনজুরিতে ভোগা একটি দলে নেতৃত্বে কাউকে না কাউকে লাগবেই। সেটা কে? নির্ধারণ হয়ে যাবে আজই।

মানবকণ্ঠ/এআই


poisha bazar