পুঁজিবাজারে টানা পাঁচ দিন সূচকে ঊর্ধ্বমুখী


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:০৩

বিমা খাতের শেয়ার বিক্রির দিনে চমক দেখিয়েছে ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, প্রকৌশল ও বস্ত্র খাত। এ চার খাতের শেয়ারের দাম বৃদ্ধির ফলে নতুন বছরের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার (৫ জানুয়ারি) সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে।

এদিন সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন ও বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। এর ফলে টানা পাঁচ কার্যদিবস পুঁজিবাজারে উত্থান হলো।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সূচকের তেজিভাবের মধ্য দিয়ে দিনের লেনদেন শুরু হয়ে চলে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত। এ সময়ে ডিএসইর প্রধান সূচক বাড়ে ৪৫ পয়েন্ট। এরপর বিমা খাতের শেয়ার বিক্রির চাপে শুরু হয় সূচকের ওঠানামা, যা দিনের বাকি সময় অব্যাহত ছিল। এ দিন বিমা কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে।

অপরদিকে বুধবার ব্যাংক খাতের ৩২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির, কমেছে সাতটির আর অপরিবর্তিত ছিল সাতটি কোম্পানির শেয়ারের। আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের ২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ২২টির আর একটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম অপরিবর্তিত ছিল। একইভাবে প্রকৌশল ও বস্ত্র খাতের প্রায় সব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। ফলে টানা পঞ্চম দিন পুঁজিবাজারে উত্থান হলো।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, এদিন বাজারে ৩৭৮টি প্রতিষ্ঠানের ৩২ কোটি ৫৫ লাখ ৮৬ হাজার ৩১৫টি শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ২১৮ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে ১২১টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৯টির।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ৩৬ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৯২৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইএক্স সূচক আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে ৭ পয়েন্ট, আর ডিএস-৩০ সূচক বেড়েছে ৪ পয়েন্ট।

লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৪১৪ কোটি ১৬ লাখ ৪৩ হাজার টাকার শেয়ার। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ১৮২ কোটি ১৮ লাখ ৯১ হাজার টাকার শেয়ার অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

বুধবার ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড। এরপর ছিল বিএসসি, ফরচুন সুজ,পাওয়ার গ্রিড, সাইফ পাওয়ার, জিএসপি ফাইন্যান্স, অ্যাক্টিভ ফাইন, জিপিএইচ ইস্পাত, লাভেলো এবং দ্যা পেনিনসুলা হোটেল লিমিটেড।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৭২ পয়েন্ট বেড়ে ২০ হাজার ৩২৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে ৩০৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ২১৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৬৪টির। আর অপরিবর্তিত ছিল ২৫টির।

এ বাজারে লেনদেন হয়েছে ৪৩ কোটি ৪৮ লাখ ৫৪ হাজার ৭১৪ টাকার শেয়ার। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৫ কোটি ৭১ লাখ ৯২ হাজার ৪৮২ টাকার শেয়ার।


poisha bazar


ads