বছরের প্রথম চন্দ্রগ্রহণ

আজ দেখা মিলবে বিরল ‘ব্লাড মুন’


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৫ মে ২০২২, ১৭:০০

বছরের প্রথম পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের সাক্ষী হতে চলেছে বিশ্ব। আজ ও আগামীকাল দক্ষিণ গোলার্ধের বেশির ভাগ জায়গা থেকেই এই গ্রহণ দেখা যাবে। এই সময় চাঁদের রং লালাভ হবে। যাকে বিজ্ঞানের পরিভাষায় ‘ব্লাড মুন’ বলা হয়।

মহাকাশ বিজ্ঞানীদের মতে, বাংলাদেশ ও ভারত থেকে এই চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে না। দক্ষিণ আমেরিকা, উত্তর আমেরিকার পূর্ব অংশ, অ্যান্টার্কটিকার কিছু অংশ, পশ্চিম ইউরোপ, পশ্চিম ও দক্ষিণ আফ্রিকা এবং শুধুমাত্র প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পূর্ব দিকে ব্লাড মুন দেখা যাবে।

নাসা জানিয়েছে, পূর্ণগ্রাস এই চন্দ্রগ্রহণকে ব্লাড মুন নামেও ডাকা হবে। ১৬ মে সকাল ৭টা ৫৮ মিনিটে শুরু হবে গ্রহণ এবং ওই একই দিনে সকাল ১১টা ৩৫মিনিট পর্যন্ত তা কার্যকরী থাকবে। ১৬ মে চন্দ্রগ্রহণ তিন ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলবে বলে আশা করা হচ্ছে।

যখন চাঁদ এবং সূর্যের মাঝে চলে আসে পৃথিবী এবং পৃথিবীর ছায়া চাঁদের উপর পড়ে তখনই চন্দ্রগ্রহণ ঘটে। মজার বিষয় হল, বছরের প্রথম চন্দ্রগ্রহণই হবে পূর্ণগ্রাস। ১৬ মের গ্রহণ বিশ্বের একাধিক বড় শহর দেখতে চলেছে। এই শহরগুলোর মধ্যে রয়েছে লন্ডন, লন্ডন, প্যারিস, হাভানা, জোহানেসবার্গ, লাগোস, মাদ্রিদ, স্যান্টিয়েগো, ওয়াশিংটন ডিসি, নিউইয়র্ক, রিও দে জেনেইরো, শিকাগো। এছাড়াও হনুলুলু, বুদাপেস্ট, এথেন্স,আঙ্কারা, কায়রোতে আংশিক চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসার সংজ্ঞা আনুযায়ী, বিভিন্ন তরঙ্গ দিয়ে আলোর এগিয়ে চলে। বিভিন্ন আলোর বিভিন্ন ভৌত উপাদান। লাল আলোর রয়েছে দীর্ঘ তরঙ্গদৈর্ঘ। বলা হচ্ছে, রেলিস স্ক্যাটারিং-এর কারণেই গ্রহণের চাঁদ এভাবে রক্তবর্ণ হয়। সূর্য অস্ত যাওয়ার সময় বহু বায়ুমণ্ডলের মধ্য দিয়ে তাকে যেতে হয় আমাদের চোখে তা ধরা পড়ার আগে পর্যন্ত। চাঁদে পৌঁছানো একমাত্র সূর্যের আলো পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল দিয়ে যায়, সেই কারণেই চন্দ্রগ্রহণের সময় দেখা যায় লাল চাঁদ বা ব্লাড মুন।


poisha bazar