বয়স্কদের করোনা: ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বাড়াবে ওষুধ


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৭ অক্টোবর ২০২০, ১৯:১২

বয়স বাড়ার সাথে সাথে শরীরের ইউমিন সিস্টেম কার্যকারিতা হারাতে থাকে। যার ফলে এই সিস্টেম যুবকদের তুলনায় বয়স্কদের ক্ষেত্রে বেশ কম কার্যকরী। এ কারণেই তুলনামূলকভাবে বয়স্কদের জন্য করোনা একটি বড় হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছে।

বয়সের সঙ্গে মানুষের শরীর বিভিন্ন সিস্টেম ক্ষয়ে যেতে থাকে। শ্রবণ শক্তি হ্রাস পায়, ত্বক মলিন হয়ে যায় এবং হাড়ের জোড়গুলোও দুর্বল হয়ে যায়। অনুরূপভাবে শরীরের ইমিউন সিস্টেমও কিছুটা শক্তি হারিয়ে ফেলে। যাকে বলা হয় ইমিউনোসেন্সেস।

কয়েক দশকে বিজ্ঞানীরা তাদের গবেষণালব্ধ ফলাফলে জেনেছে, বয়স্ক ইমিউন সিস্টেম শরীরকে সংক্রমণের ঝুঁকিতে ফেলতে এবং ভ্যাকসিনের জন্য তাদের প্রতিক্রিয়াকে দুর্বল করে দিতে পারে।

গত জুনে ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ঘোষণা দিয়েছে, কার্যকর প্রমাণিত হওয়ার জন্য কভিড-১৯ এর ভ্যাকসিনকে অন্তত অর্ধেক ভ্যাকসিনেটেড ব্যক্তিকে সুরক্ষা দিতে হবে। কিন্তু বয়স্কদের সুরক্ষা দেয়ার ক্ষেত্রে এটি হয়তো সেই সীমা নাও ছুঁতে পারে। জেরোনটোলজিস্ট ম্যাট কায়েবেরলেইন বলেন, কোনো ভ্যাকসিন বয়স্কদের মাঝে তরুণদের মতো করে কার্যকর হবে না, এটা অনেকটাই নিশ্চিত।

মানুষের ইমিউন সিস্টেম মানব মনের আচরণের মতো জটিল এবং বার্ধক্য প্রায় প্রত্যেকটি উপাদানকে প্রভাবিত করে। কয়েক ধরনের ইমিউন সেল হ্রাস পেতে থাকে : উদাহরণস্বরূপ বয়স্ক লোকদের খুব অল্পই নবিস টি সেল থাকে, যা কিনা দেহের নতুন শত্রুর বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে। পাশাপাশি বি সেলও কম থাকে, যেটি অ্যান্টিবডি উৎপাদন করে রোগজীবাণুকে আটকানোর জন্য এবং তাদের ধ্বংস করে।

এছাড়া বয়স্ক লোকেরা দীর্ঘমেয়াদি, নিম্ন স্তরের প্রদাহের অভিজ্ঞতা লাভ করে। কায়েবেরলেইন বলেন, এ দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহজনিত অবস্থা, যা কিনা ইমিউন নিষ্ক্রিয়তার দিকে চালিত হয়।

আশার কথা হলো, কিছু বিজ্ঞানী একটি ওষুধের বিকাশ ও পরীক্ষা চালাচ্ছেন- যা কিনা বয়স্ক লোকদের ভ্যাকসিনের প্রতিক্রিয়া উন্নতি করবে এবং ভাইরাসের বিরুদ্ধে আরো শক্তিশালীভাবে লড়াই করতে সাহায্য করবে। বার্ধক্যজনিত ইমিউন সিস্টেমের সীমাবদ্ধতা নিয়ে কাজ করার পরিবর্তে তারা এটিকে পুনরুজ্জীবিত করার চেষ্টা করছেন। এক্ষেত্রে কার্যকর হতে পারে বার্ধক্য-প্রতিরোধী ওষুধও, যা নিয়ে বিজ্ঞানীরা অনেক দিন ধরেই কাজ করছেন।

এদের একটি কাজ করে কোষ বৃদ্ধিতে। এ ওষুধ এমটিওআর নামের প্রোটিনকে বাধা দেয়। ল্যাবরেটরিতে এমওটিআর প্রতিরোধ করার ফলে মাছি থেকে ইঁদুরের জীবনকাল বাড়তে দেখা গেছে, যা বয়স্ক লোকদের ক্ষেত্রেও কভিড-১৯-এর ভ্যাকসিনের প্রতিক্রিয়ায় কার্যকর প্রমাণিত হতে পারে।

মানবকণ্ঠ/এনএস





ads







Loading...