‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তুরস্ককে সমর্থন দিয়েছে পাকিস্তান’

‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তুরস্ককে সমর্থন দিয়েছে পাকিস্তান’
‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তুরস্ককে সমর্থন দিয়েছে পাকিস্তান’ - ফাইল ছবি।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৫ মার্চ ২০২০, ১৮:৩৩

সিরিয়া ইস্যুতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে ফোনালাপ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান। সিরিয়ার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার দুই নেতার মধ্যে ফোনালাপ হয়।

তুর্কি যোগাযোগ অধিদফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, সিরিয়ার ইদলিব পরিস্থিতি ও শরণার্থী ইস্যু নিয়ে আলোচনা করা হয়। খবর হুরিয়াত ডেইলি নিউজের।

ওই বিবৃতিতে বলা হয়, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ইদলিবে হামলায় নিহত সেনাদের প্রতি আন্তরিক সহানুভূতি ও সমবেদনা জানিয়েছেন। পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী তুরস্কের বৈধ নিরাপত্তার সমর্থন এবং ওই অঞ্চলের মানবিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

তিনি তুর্কির মানবিক সহায়তারও প্রশংসা করেছেন। তুর্কি লাখ লাখ সিরিয়ান শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। এতে বলা হয়, পাকিস্তান সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তুরস্ককে সম্পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে। অন্যদিকে, ইউরোপে ঢোকার জন্য অপেক্ষারত জড়ো হওয়া শরণার্থীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়েছে গ্রিক কর্তৃপক্ষ।

বুধবার তুরস্ক ও গ্রিস সীমান্ত এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাক জানায়, গ্রিক বাহিনীর হামলার পর তুরস্ক ও গ্রিসের সীমান্ত ফটকের মধ্যে নিরাপদ এলাকায় আহতরা হাসপাতালে ভর্তি হন।

ইউরোপের বিরুদ্ধে অভিযোগ, অনিয়মিত অভিবাসীদের সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি রাখতে তারা ব্যর্থ হয়েছে। তুরস্ক তার নীতি থেকে সরে শরণার্থীদের ইউরোপে ঢোকার অনুমতি নিয়েছে। তুরস্কের সীমান্ত উন্মুক্ত করে দেয়ার পর এ পর্যন্ত ১ লাখ ৩০ হাজারের বেশি শরণার্থী সীমান্ত অতিক্রম করে ইউরোপে ঢুকেছে।

শরণার্থী সঙ্কট নিয়ে ২০১৫ সালের চুক্তির প্রতিশ্রুতি সয়ংসম্পূর্ণ না করার অভিযোগ তোলা হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিরুদ্ধে। অনিয়মিত ও আশ্রয় চাওয়া শরণার্থীদের সঙ্গে গ্রিসের প্রতিক্রিয়া অতি কঠোর বলে দাবি করা হচ্ছে।

বলা হচ্ছে, শরণার্থীদের ওপর হামলা, টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপসহ গ্রিক নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে অন্তত দুই শরণার্থী নিহত হয়েছে। তুরস্কে ইতোমধ্যে ৩৭ লাখ সিরিয়ান শরণার্থী আশ্রয় দিয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads






Loading...