রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুদণ্ড

রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুদণ্ড
পারভেজ মোশাররফ - ফাইল ফটো

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৩৬,  আপডেট: ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:৩২

পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন পাকিস্তানের বিশেষ আদালত। রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় মঙ্গলবার পেশওয়ার হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ওয়াকার আহমেদ শাহের নেতৃত্বাধীন সিন্ধ হাইকোর্টের বিচারপতি নাজার আকবার এবং লাহোর হাইকোর্টের বিচারপতি শহীদ করিম এর বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সরকারের পক্ষে আইনজীবী আলী জিয়া বাজওয়া সাবেক এই সামরিক শাসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপনের জন্য আদালতের কাছে আবেদন করেছিলেন।

বাজওয়া বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী শওকত আজিজ, আব্দুল হামিদ দোগার ও জাহিদ হামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনতে চায় সরকার। এক সঙ্গে সব অভিযুক্তের বিচার করা উচিত। সাবেক স্বৈরশাসক পারভেজ মুশাররফের এই সহযোগীদেরও বিচারের মুখোমুখি করা উচিত।

২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ছিলেন পারভেজ মুশাররফ। রাষ্ট্রদ্রোহ, জরুরি অবস্থা জারি, বেআইনি উপায়ে বিচারপতি বরখাস্ত, বেনজির ভুট্টো হত্যা এবং লাল মসজিদ তল্লাশি অভিযান-সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি মামলায় বর্তমানে পলাতক রয়েছেন সাবেক এই পাক সেনাপ্রধান।

২০০৭ সালের ৩ নভেম্বর জরুরি অবস্থা জারির অভিযোগে দেশটির আদালতে মুশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা হয়। ২০১৩ সালের ডিসেম্বর থেকে এই মামলার রায় আদালতে ঝুলে ছিল।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে নওয়াজ শরীফকে ক্ষমতাচ্যুত করে পাকিস্তানের নির্বাহী ক্ষমতা দখল করেন সেনাবাহিনীর প্রধান পারভেজ মোশাররফ। পরবর্তীতে ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

মানবকণ্ঠ/আরবি





ads







Loading...