নিজের আগের রেকর্ড ভেঙেই সোনা জিতলেন মাবিয়া

৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে সোনা জিতেছেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত।
৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে সোনা জিতেছেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। - ছবি: বিওএ

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৭ এপ্রিল ২০২১, ১৯:১৯

ভারোত্তোলনে দেশে তার প্রতিদ্বন্দ্বী কেউ নেই বললেই চলে। তার কোনো বিকল্পও নেই। বলা হচ্ছে মাবিয়া আক্তারের কথা। বুধবার এই ভারোত্তোলক নিজের নামের প্রতি নিজের সুবিচার করে আবারো সোনা জিতলেন। বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস ভারোত্তোলনে ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে সোনা জেতার পথে নিজের আগের রেকর্ড ভেঙে নতুন করে গড়েছেন এই স্বর্ণকন্যা।

ময়মনসিংহের জিমনেশিয়ামে মেয়েদের ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে মাবিয়া স্ন্যাচ এবং ক্লিন ও জার্কে রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছেন। মোট ওজন তুলেছেন ১৮১ কেজি। এর মধ্যে স্ন্যাচে ৮০ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১০১ কেজি। সোনা জয়ের সঙ্গে নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙেছেন মাবিয়া। ২০১৮ সালে আন্তঃসার্ভিস ভারোত্তোলনে ১৭৯ কেজি তুলে রেকর্ড গড়েছিলেন। সেটি ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পর মাবিয়ার চোখ এখন টোকিও অলিম্পিকে।

জাপানে এ বছর হতে যাওয়া অলিম্পিকে অংশ নেয়ার আগে এ মাসেই উজবেকিস্তানে হতে যাওয়া বাছাই পর্বের বাধা পেরোতে হবে তাকে। মাবিয়ার লক্ষ্য সেখানে ভালো করে অলিম্পিকের টিকিট কাটা, ‘উজবেকিস্তানের প্রতিযোগিতায় ভালো করতে পারলে টোকিও অলিম্পিকে খেলার টিকিট মিলবে। এজন্য আমাকে আরো পরিশ্রম করতে হবে।’

পরিশ্রম করেছেন বলেই ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে দাপট দেখিয়েছেন মাবিয়া। টানা দুটি এসএ গেমসে সোনা জেতার পরও পারফরম্যান্সের ধার কমেনি তার। উল্টো এবার ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে অংশ নেয়ার জন্য নিজের ওজনই কমিয়ে ফেলেছেন ১০ কেজি!

এই অ্যাথলেট জানিয়েছেন, তার প্রিয় ইভেন্ট ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণি হলেও, এবার ৬৪ কেজিতে প্রতিযোগিতাতে অংশ নিতে ঘাম ঝরিয়েছেন প্রচুর। ওজন কমিয়েছেন ১০ কেজির মতো। আর পরিশ্রম করে সফল হওয়ায় খুশি তিনি।

তবে ওজন তুলতে গিয়ে চোটের সম্মুখীন হয়েছিলেন মাবিয়া। বাঁ হাতের কনুইতে প্রচণ্ড ব্যথা পেয়েছেন। তার পরও তিনি দমে যাননি। ঝুঁকি নিয়েই চালিয়ে গেছেন ভারোত্তোলন।

তিনি বলেন, ‘ক্লিন অ্যান্ড জার্কে আমি ১০৩ কেজি উত্তোলন করে রেকর্ড আরো বাড়াতে চেয়েছিলাম। ওই সময়ই ব্যথা পাই আমি। তার পরেও প্রতিযোগিতা থেকে সরে যাইনি। কারণ যে করেই হোক আমাকে সেরা হতে হবে। তবে এখন মনে হচ্ছে হাতে চিড় ধরেছে। তবে এক্স-রে করলে বোঝা যাবে। তবে আমি আমার পারফরম্যান্সে খুশি।’

এই ইভেন্টে কাল রুপা জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মিলা আক্তার মোট ১৩২ কেজি তুলে। আর সিপাহীবাগ যুব সংঘের লাবনী আক্তার ব্রোঞ্জ জিতেছেন মোট ১১৬ কেজি উত্তোলন করে।






ads
ads