ভাগ্যের কল্যাণে বেঁচে গেলেন উডস


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৩৬

শিরোনামের কথাটি ছিল দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তার। মঙ্গলবার ভয়াবহ এক গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়েন কিংবদন্তি গলফার টাইগার উডস। তার দুমড়মুচড়ে যাওয়া গাড়িটি দেখার পরই লস অ্যাঞ্জেলস কাউন্টি শেরিফের ডেপুটি কার্লোস গঞ্জালেজ এমন মন্তব্য করেন। মৃত্যুকে খুব কাছ থেকে দেখে আসা উডস জটিল এক অস্ত্রোপচারের পর এখন সুস্থও আছেন। জানা গেছে, তিনি চিকিত্সকদের কথায় সাড়া দিচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে লস অ্যাঞ্জেলসে দুর্ঘটনাটি ঘটে। একটি পাহাড়ি রাস্তা দিয়ে চলার সময় সেটি খাদে পড়ে যায়। ব্ল্যাকহর্স রোডের হাউথর্ন বুলেভার্ড দিয়ে উত্তরের দিকে যাচ্ছিল উডসের গাড়ি। তখনই গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারায়। কয়েকটি পাক খেয়ে সেটি খাড়া রাস্তা থেকে খাদে পড়ে যায়। এ সময় উডস নিজেই গাড়ি চালাচ্ছিলেন। উডসের এজেন্ট মার্ক স্টেনবার্গ এই খবর জানিয়েছেন।

খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধারকর্মীরা দুর্ঘটনা স্থলে পৌঁছান। তাকে জস অফ লাইফ পদ্ধতির সাহায্যে গাড়িটির ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল। এমন মারাত্মক এক দুর্ঘটনার পরেও উডস অবশ্য জ্ঞান হারাননি। তিনি উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে কথাও বলেছেন। কার্লোস গঞ্জালেজ এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমি তখন তাকে চিনতে পারি যখন সে আমাকে বলছিল তার নাম, টাইগার।’ উদ্ধারকার্য শেষে হাসপাতালে নেয়া হলে দীর্ঘ সময় অস্ত্রোপচার চলে ৪৫ বছর বয়সী এই গলফারের।

দুর্ঘটনায় উডসের দুটি পায়ের হাড়ই ভেঙেছে। গোড়ালিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ। এ জন্যই দীর্ঘসময় ধরে চলে তার অস্ত্রোপচার। উডসের পরিবারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক এক বার্তায় জানানো হয়েছে, ‘এই কঠিন সময় আমার পাশে থাকার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ। টাইগার একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হয়েছিল। ওর ডান পায়ের নিচের অংশ ও গোড়ালিতে গুরুতর চোট লেগেছিল। যদিও দীর্ঘ অস্ত্রোপচারের পর টাইগার এখন ভালো আছেন। দ্রত উন্নতি করছে টাইগার।’

গলফের বর্তমান প্রজন্মের সেরা খেলোয়াড় ধরা হয় উডসকে। ১৫টি মেজর শিরোপা ছাড়াও আধুনিক যুগের একমাত্র পেশাদার গলফার হিসেবে চারটি মেজর শিরোপাইউএস ওপেন, ব্রিটিশ ওপেন, পিজিএ চ্যাম্পিয়নশিপ এবং মাস্টার টাইটেল পরপর জিতেছেন। এই দুর্ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, সাবেক বক্সিং কিংবদন্তি মাইক টাইসন, বাস্কেটবল কিংবদন্তি স্টেফানকারি ও ম্যাজিক জনসন, সাঁতার কিংবদন্তি মাইকেল ফেলপসসহ বিশ্বের অনেক নামি-দামি তারকারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সহমর্মিতা প্রকাশ করেছেন।


poisha bazar

ads
ads