manobkantha

মানুষ ও যন্ত্রের মিশেলে মানবিক শিল্পবিপ্লবের দরকার: মোস্তাফা জব্বার

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, যন্ত্রমানব সভ্যতার নিয়ন্ত্রক হতে পারে না। চতুর্থ শিল্পবিপ্লব যান্ত্রিক। মানুষ ও যন্ত্রের মিশেলে মানবিক শিল্পবিপ্লবের দরকার।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে উত্থাপিত জাপানের সোসাইটি ফাইভ পয়েন্ট জিরো বা পঞ্চম শিল্পবিপ্লব ধারণাটি বিশ্ববাসী গ্রহণ করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় পৃথিবী আজ পঞ্চম শিল্পবিপ্লবে প্রবেশ করেছে।

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ আয়োজিত ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার দ্বিতীয় দিনে ‘পঞ্চম শিল্পবিপ্লব ও ফাইভ-জি অবকাঠামো: বাংলাদেশের প্রস্তুতি’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অ্যামটবের মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ এস এম ফরহাদের সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মোহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম।

পঞ্চম শিল্পবিপ্লবের পটভূমি বর্ণনা করে মন্ত্রী বলেন, পঞ্চম শিল্পবিপ্লব ব্যাপকভাবে বিশ্বে আলোচিত বিষয়। আমরা পঞ্চম শিল্পবিপ্লব নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বলছি। আমাদের একটি মানবিক সভ্যতা গড়ে তোলার বিকল্প নেই। যান্ত্রিক কোনো শিল্পবিপ্লব হতে পারে না, তা হতে হবে মানবিক। আমরা বিপ্লব চাই। এর মানে হচ্ছে অতীতকে ভেঙে দিয়ে নতুন কিছু তৈরি করা। আমাদের প্রযুক্তির শেষ উদ্ভাবনে যেতে হবে ও প্রযুক্তির ওপর মানুষের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি। ডিজিটাল বাংলাদেশের শক্তিশালী ভিত্তির ওপর স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে উঠবে। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট নাগরিক খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মানুষের নেতৃত্বের জায়গার ক্ষেত্রে যন্ত্রের ওপর মানুষের সক্ষমতা থাকতে হবে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্ম অত্যন্ত মেধাবী। তাদের পঞ্চম প্রযুক্তির যন্ত্র বানানোর দক্ষতা অর্জনে কাজ করতে হবে। তারা যন্ত্র বানাবে ও যন্ত্রের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার যোগ্যতা অর্জন করবে। মানুষের সভ্যতা মানুষের হাতেই রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, পঞ্চম শিল্পবিপ্লবের জন্য যে প্রযুক্তি চাইবো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ে তা পড়াতে হবে। নতুন প্রজন্মকে দক্ষতা দিতে না পারলে আমরা অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে সফল হবো না।

মূল প্রবন্ধে অধ্যাপক মাহফুজুল ইসলাম বলেন, আমরা পঞ্চম শিল্পবিপ্লব যুগের দিকে যাচ্ছি। পঞ্চম শিল্পবিপ্লব হবে মানবিক। এখানে মানুষ ও যন্ত্র মিলে-মিশে একসঙ্গে কাজ করবে এবং মানুষই যন্ত্রকে নিয়ন্ত্রণ করবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মাহবুব-উল আলম, বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মনিরুজ্জামান জুয়েল, হুয়াওয়ের চিফ ট্যাকনিক্যাল কর্মকর্তা নিকি মা জিয়ান, রবির প্রতিনিধি শাহেদ আলম ও ফাইভার এট হোমের চেয়ারম্যান মইনুল হক সিদ্দিকী।

মানবকণ্ঠ/আরএইচটি