manobkantha

খিচুড়ির সঙ্গে বৃষ্টি উপভোগ

বৃষ্টির সঙ্গে খিচুড়ির যে একটা গভীর রয়েছে সেই ব্যাপারে সন্দেহ নেই। মেঘলা আবহাওয়া ও বৃষ্টি হলেই বাঙালির মন খিচুড়ি জন্য আঁকুপাঁকু করতে থাকে। মুখরোচক এই খাবারটিরও আবার রয়েছে নানা ধরন। কেউবা ভালোবাসে পোলাওর চাল আর মুগ ডালের ভুনা খিচুড়ি। কারো আবার পছন্দের তালিকায় আছে ঝোলসমেত পাতলা খিচুড়ি। অনেকে আবার সবজি বা মাংস মিশিয়েও খাবারটি তৈরি করেন। 

চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক কীভাবে তৈরি করবেন পাতলা খিচুড়ি-

উপকরণ

১. পোলাও বা বাসমতির চাল ২ কাপ ২. মসুর ডাল আধা কাপ ৩. মুগ ডাল ১ কাপ ৪. তেল ২ টেবিল চামচ ৫. ঘি ১ টেবিল চামচ ৬. ফুলকপি ১ কাপ ৭. লবণ স্বাদমতো ৮. আদা-রসুন বাটা দেড় টেবিল চামচ ৯. কাঁচা মরিচ ৫টি ১০. গাজর আধা কাপ ১১. মটরশুঁটি আধা কাপ ১২. সরিষার তেল ১/৪ কাপ ১৩. পেঁয়াজ কুচি ৩টি ১৪. শুকনো মরিচ ৪টি ১৫. তেজপাতা ৩টি ১৬. এলাচ ৫-৬টি ১৭. মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ১৮. হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ ১৯. জিরার গুঁড়া ১ চা চামচ ২০. দারুচিনি ২ টুকরা ২১. আস্ত জিরা ১ চা চামচ ২২. গরম মসলার গুঁড়া আধা চা চামচ ২৩. জিরার গুঁড়া আধা চা চামচ।

পদ্ধতি

মুগ ডাল প্রথমে প্যানে মাঝারি আঁচে ভেজে নিন। ভাজা মুগ ডাল এবার মসুর ডাল ও চালের সঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

অন্যদিকে চুলায় মাঝারি আঁচে প্যানে তেল গরম করে সবজিগুলো ভেজে নিন। আরেকটি প্যান চুলায় দিয়ে সরিষার তেল গরম করুন। গরম হলে শুকনো মরিচ, জিরা, দারুচিনি, এলাচ ও তেজপাতা মিশিয়ে ১ মিনিট ভেজে নিন।

এবার পেঁয়াজ কুচি হালকা বাদামি করে ভেজে আদা-রসুন বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়ুন। তার মধ্যে কাঁচা মরিচের ফালি দিয়ে দিন। কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে পানি মিশিয়ে তাতে দিয়ে দিন মরিচ গুঁড়া, হলুদ গুঁড়া ও জিরার গুঁড়া।

কষানো মসলায় পানি ঝরিয়ে রাখা চাল-ডাল দিয়ে কয়েক মিনিট ভাজুন। গরম পানি দিয়ে দিন পরিমাণমতো। স্বাদমতো লবণ দিয়ে ভালো করে নেড়েচেড়ে ঢেকে দিন পাত্রটি। মিডিয়াম আঁচে ৫ মিনিট রাখুন।

তারপর ঢাকনা তুলে নেড়ে নিন খিচুড়ি। খিচুড়ি বেশি পাতলা করতে চাইলে আরও খানিকটা পানি দিতে পারেন। পানি ফুটে উঠলে কেটে রাখা সবজির টুকরাগুলো দিয়ে নেড়ে নিন।

চুলার আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিন পাত্র। আধা ঘণ্টা পর আরেকবার নেড়ে মটরশুঁটি ও কাঁচামরিচের টুকরা দিয়ে আরও ৫ মিনিট রান্না করুন। এরপর গরম মসলার গুঁড়া ও ঘি ছড়িয়ে দিন খিচুড়ির উপরে। তারপর গরম গরম পরিবেশন করুন।

মানবকণ্ঠ/এআই