manobkantha

করোনা হওয়ায় নারী যাত্রীর বিমানের টয়লেটে ৩ ঘণ্টা

আমেরিকার শিকাগো থেকে বিমান যাচ্ছিল আইসল্যান্ডের রাজধানী রেইক্যাভিকে। কোভিডবিধি মেনে উড়ানের আগে যাত্রীদের নমুনা সংগ্রহ করা হয় পরীক্ষার জন্য। তাতে সকলের রিপোর্টই নেগেটিভ এসেছিল। কিন্তু মাঝ আকাশে এক নারী অসুস্থ হয়ে পড়ায় ফের তার পরীক্ষা হয়। সেই পরীক্ষার ফল বেরোতে জানা যায় তিনি করোনায় আক্রান্ত। অতঃপর তড়িঘড়ি তিনি গেলেন বিমানের টয়লেটে! সাময়িক নিভৃতবাসে!

মারিসা ফোটিও নামে ওই নারী সুইজারল্যান্ডে তার বাবা ও ভাইয়ের সাথে দেখা করতে যাচ্ছিলেন। রেইক্যাভিক থেকে বার্নেগামী বিমানে সওয়ার হওয়ার কথা ছিল তার।

মারিসা জানিয়েছেন, তার দু’টি কোভিড-১৯ টিকা নেয়া হয়ে গিয়েছে। বিমানযাত্রার জন্য গত এক সপ্তাহে দু’বার আরটি-পিসিআর এবং পাঁচ বার ‘র‌্যাট’ পরীক্ষা করিয়েছিলেন। প্রতিবারই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

পেশায় স্কুল শিক্ষিকা মারিসা জানিয়েছেন, বিমান ওড়ার ঘণ্টা দেড়েক পর থেকে তার গলায় যন্ত্রণা শুরু হয়। মাথাও ঘুরতে থাকে। এর পর ফের তার নমুনা পরীক্ষা হয় এবং রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

তিনি বলেন, ‘‘নিজের পাশাপাশি আমি সহযাত্রীদের নিয়েও চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু ফ্লাইট অ্যাটেন্ড্যান্টরা আমাকে আশ্বস্ত করেন।’

মারিসা জানান, প্রথমে বিমানের মধ্যেই তাকে অন্য যাত্রীদের থেকে দূরে বসানোর চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু সব আসন পূর্ণ থাকায় তা সম্ভব হয়নি।

‘শেষ পর্যন্ত আমি অন্য যাত্রীদের থেকে দূরে থাকার জন্য শৌচাগারে যাওয়ার কথা বলি।’

পরবর্তী তিন ঘণ্টা সেখানেই কাটান মারিসা। অভিনব নিভৃতবাস-সেলফি তুলে পোস্টও করেন নেটমাধ্যমে। -সিএনএন