manobkantha

বিদ্যুৎ বিভ্রাটে বন্ধ ছিল অ্যাশেজের সম্প্রচার

যান্ত্রিক গোলযোগ যেন পিছুই ছাড়ছে না অ্যাশেজের। টেস্টের দ্বিতীয় দিনে বেন স্টোকস এক সেশনে ১২ বার নো বল করে পার পেয়ে গিয়েছিলেন। মূলত টিভি আম্পায়ারের নো বল ধরার প্রযুক্তি, আর স্নিকো মিটারে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। সীমান্তে নিষেধাজ্ঞার কারণে বাইরে থেকে আনা সম্ভব হয়নি সমাধানও। তাই এই সমস্যা।

এবার অ্যাশেজে দেখা দিল আরও এক প্রযুক্তিগত সমস্যা। অ্যাশেজের প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনে এবার ব্রিসবেনের গ্যাবায় হানা দিল লোডশেডিং। যার ফলে খেলা সম্প্রচারও বন্ধ ছিল আধঘণ্টার মতো সময়।

ব্রিসবেন টেস্টে আজ প্রথম সেশনে ঘটেছে এই ঘটনা। এই ঘটনার ফলে পুরো বিশ্বেই প্রায় আধা ঘণ্টার মতো সময় ধরে খেলা দেখা সম্ভব হয়নি সিংহভাগ দর্শকের। চ্যানেল সেভেন নিজস্ব ব্যবস্থায় কিছুক্ষণ কিছু ফুটেজ দেখিয়েছে অস্ট্রেলীয় দর্শকদের, কিন্তু তাদেরও একটা সময় সেটা বন্ধ রাখতে হয়েছিল বিদ্যুৎ না থাকায়।

সে সময় অল্প সময়ের জন্য সম্প্রচারকারীরা চেষ্টা করেছিলেন একটা প্রান্ত থেকে দৃশ্য ধারণ করে তা সম্প্রচার করতে। কিন্তু সেটাও তার ‘অন এয়ার’ করতে ব্যর্থ হন বিদ্যুৎ না থাকায়।

এ সময় ব্যতিক্রম হয়ে ছিল কেবল রেডিও ধারাভাষ্য। সে সময়ে ভেন্যুতে উপস্থিত ছিলেন দেশটির রেডিও চ্যানেল এবিসির সম্প্রচারকারীরা, পুরোদমে কার্যক্রম চালিয়ে গিয়েছে চ্যানেলটি।

তবে সমস্যাটা শুধু দর্শক, সম্প্রচারকারীদেরই হয়েছে বিষয়টা এমন নয়। সে সময় বন্ধ রাখতে হয়েছিল ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমও।

২৫ মিনিটের সময় চলছিল পানি পানের বিরতি। সেই বিরতিতেই যেন হালে পানি পান সম্প্রচারকারীরা। সে বিরতিতেই যে ফিরেছে বিদ্যুৎ সরবরাহ। তাতেই সব সমস্যার সমাধান মিলেছে প্রায় আধা ঘণ্টা পর।