manobkantha

তুলে নিয়ে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

নোয়াখালীর সেনবাগে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের বীরনারায়ণপুর গ্রামের জহিরের ডেকোরেটরে এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার সকালে আক্রন্ত ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে দুজনকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন— বীজবাগ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বীর নারায়ণপুর গ্রামের নজু কারিগর বাড়ির মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে জহির উদ্দিন (৪৫) ও তার সহযোগী একই এলাকার মৃত আলী সারেংয়ের ছেলে হাবিব উল্যাহ (৪৩)।

স্থানীয় বীজবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম উদ্দিন কাজল জানান, ঘটনাটি জানার সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশকে বলা হয়েছে।

সেনবাগ থানার ওসি মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী বলেন, অভিযুক্ত জহির পেশায় একজন ডেকোরেটর ব্যবসায়ী। অপর আসামি হাবিব ওই জায়গার মালিক। বিভিন্ন সময় ওই ছাত্রীকে টাকা দিয়ে প্রলোভন দেখাতেন জহির। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ছাত্রী মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে তার ডেকোরেটরের ভেতরে তাকে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণে তাকে সহায়তা করেন হাবিব।

মামলার পর আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।