manobkantha

৯৩ রানে আটকে গেল নিউজিল্যান্ড

শুরুতে নাসুম আহমেদ ও পরে মোস্তাফিজুর রহমানের আঘাতে ১০০ রানও করতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। দুজনেই নেন চারটি করে উইকেট। ১৯ ওভার ৩ বলে মাত্র ৯৩ রানে অলআউট হয় নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশের সামনে সিরিজ জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ালো ৯৪ রান।

কিউই শিবিরে ইনিংসের শুরুতে ধস নামান বাঁ-হাতি অর্থোডক্স স্পিনার নাসুম আহমেদ। আর শেষ দিকে মোস্তাফিজের গতির মুখে পড়ে আসা-যাওয়ার মিছিলে অংশ নেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা।

হারলেই সিরিজ হাতছাড়া, জিতলে সমতা। তখন শেষ ম্যাচটি হবে অঘোষিত ফাইনাল তথা সিরিজ জয়ের সুযোগ। এমন কঠিন সমীকরণ সামনে রেখে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

বাঁ-হাতি অর্থোডক্স স্পিনার নাসুম আহমেদের ঘূর্ণি বলে বিভ্রান্ত হয়ে ১১.৩ ওভারে ৫২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

দলের এমন ব্যাটিং বিপর্যয়ে তৃতীয় ওভারে খেলতে নেমে হাল ধরেন উইলি ইয়াং। শেষ ওভারে মোস্তাফিজের শিকার হওয়ার আগে ৪৮ বলে পাঁচটি চার ও এক ছক্কায় সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন তিনি। তার একার লড়াইয়ে ৯৩ রান করার সুযোগ পায় নিউজিল্যান্ড। এছাড়া টম ল্যাথাম (২১) ও ফিন অ্যালান (১২) ছাড়া অন্যরা কেউই দুই অঙ্কের ফিগার রান করতে পারেননি।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। ইনিংসের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারায় কিউইরা। প্রথম ওভারেই সাফল্য পান নাসুম আহমেদ। তার বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ওপেনার রাচিন রবীন্দ্র।

এরপর নিজের দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে নাসুম আহমেদ ফেরান নিউজিল্যান্ডের আরেক ওপেনার ফিন অ্যালানকেও। ২.৪ ওভারে মাত্র ১৬ রানে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে সফরকারীরা।

১৬ রানে দুই ওপেনারের বিদায়ের পর দলকে খেলায় ফেরান অধিনায়ক টম ল্যাথাম ও উইলি ইয়াং। ভঙ্গকর হয়ে ওঠা এই জুটি ভাঙেন মেহেদি হাসান। তার শিকার হয়ে ১০.৩ ওভারে ৫১ রানে ফেরেন কিউই অধিনায়ক ল্যাথাম।

১২তম ওভারে বোলিং এসে নতুন ব্যাটসম্যান হেনরি নিকোলাসকে বোল্ড করেন নাসুম আহমেদ। ঠিক পরের বলে নাসুমের চতুর্থ শিকার হন কলিন ডি গ্রান্ডহোম। তার শিকার হয়ে একে একে সাজঘরে ফেরেন রাচিন রবীন্দ্র, ফিন অ্যালান, হেনরি নিকোলাস ও কলিন ডি গ্রান্ড হোম।

নাসুম আহমেদের স্পিনে বিভ্রান্ত নিউজিল্যান্ড। চার ওভারে মাত্র ১০ রানে নিউজিল্যান্ডের প্রথম সারির চার ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান বাঁ-হাতি এ অর্থোডক্স স্পিনার। তার বলে বিভ্রান্ত হয়ে একে একে সাজঘরে ফেরেন রাচিন রবীন্দ্র, ফিন অ্যালান, হেনরি নিকোলাস ও কলিন ডি গ্রান্ডহোম। ১১.৩ ওভারে ৫২ রানে ৫ উইকেট হারাল নিউজিল্যান্ড।

এরপর কিউই শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন মোস্তাফিজুর রহমান। তার বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে পরপর দুই বলে আউট হন টম ব্লান্ডেল ও কোল ম্যাককলিন। ৮ বলে ৪ রান করা এজাজ প্যাটেলকে ফেরান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

ইনিংসের শেষ ওভারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে উইলি ইয়াং ও ব্লেয়ার টিকনারকে আউট করে ১৯.৩ ওভারে নিউজিল্যান্ডকে ৯৩ রানে গুঁড়িয়ে দেন মোস্তাফিজুর রহমান।

মানবকণ্ঠ/এমএইচ