manobkantha

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা খেলা চলাকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ মোতায়েন

দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ—কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশের প্রতি জেলায় এই দুই দলের সমর্থক দিয়ে ভরা। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ পরিস্থিতি ইতিমধ্যে খবরে উঠে এসেছে।

এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সময় ১১ জুলাই ভোর ৬টায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ফাইনাল খেলার উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিশৃঙ্খলা এড়াতে পাঁচশ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। চলছে সতর্কতামূলক মাইকিং।

শনিবার সকাল থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেনর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন।

তিনি বলেন, ‌ইতোমধ্যেই এই খেলা নিয়ে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। তাই জেলা পুলিশ থেকে অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থার নেয়া হচ্ছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে, ফাইনাল খেলা খোলা জায়গায়, বড় স্ক্রিনে, কোনো ক্লাবে বা চায়ের দোকানে দেখার আয়োজন করে গণজমায়েত করা যাবে না।

বিষয়টি আমারা মাইকিং করে জানিয়ে দিচ্ছি। ফাইনাল খেলার দিন ভোর ৫টা থেকে মাঠে থাকবে পুলিশের বিশেষ দল। জেলার ১১৬ জায়গায় পুলিশ রণপাহারা দেবে। সেখানে ৪৬৪ জন পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবেন। এছাড়া চেকপোস্ট ও টহল দল থাকবে ৪০টি। তাছাড়া গোয়েন্দা পুলিশ মাঠে থাকবে এবং খেলা শেষে বিজয় মিছিল করতে দেয়া হবে না।

গত ৬ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের দামচাইল বাজারে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই দিন সকালে প্রথমে কথা-কাটাকাটির জেরে পরে বিকেলে প্রতিপক্ষের হামলায় ব্রাজিলের এক সমর্থকের চাচা নওয়াব মিয়া (৬০) নিহত হন। এর জেরে ওই রাতে পাল্টা হামলায় আর্জেন্টিনার তিন সমর্থক জাকির মিয়া (৩২), সেলিম মিয়া (৪৫) ও সৈয়দাবুর রহমান (৩৫) আহত হন। তারা সবাই সাদেকপুর ইউনিয়নের আলাকপুর গ্রামের বাসিন্দা।