manobkantha

ঝিনাইদহে চাচা-ভাইপো গ্রুপের সংঘর্ষ

ইউপি চেয়ারম্যান চাচার সঙ্গে ভাইপো গ্রুপের সংঘর্ষ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বেশ কয়েকটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। সংঘর্ষে দুইজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। রোববার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

আহত আসাদুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান মনাকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে আসাদুলের অবস্থা গুরুতর।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শিমলা-রোকনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা নাসির চৌধুরীর সঙ্গে তারই ভাইপো মিনি মালিথার বেশ কিছুদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিলো। দুইদিন আগে পুকুরিয়া গ্রামের বাবুল খাকে না পেয়ে ছমিরন নেছাকে মারধর করে নাসির চেয়ারম্যানের সমর্থকরা। এরই জের ধরে রোববার দুই গ্রুপের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

চেয়ারম্যান নাসির চৌধুরীর দাবি, রোববার আসাদুল ও আব্দুল মান্নান মনা এই দুইজনকে মিনি মালিথা ও মঞ্জুর নেতৃত্বে মারধর করে। পরে আমরা সেখানে গেলে তারা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

এদিকে ভাইপো মিনি মালিথা দাবি, দুইদিন আগেও বাবুল খাকে না পেয়ে তার স্ত্রীকে মারধর করে চেয়ারম্যানের সমর্থকরা। আজ হাফিজুর রহমানকে মারধর করে। নির্যাতিতরা প্রতিরোধ করতে গেলে বোমার বিস্ফোরণ ঘটনায় নাসির চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকরা। বোমার বিস্ফোরণে হাফিজুর ও মিলন নামে দুইজন আহত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার এসআই আবুল খায়ের জানান, খবর পেয়ে আমরা ওই গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত। পুলিশ আসার পর কোনেআ বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়নি। আগে বিস্ফোরণ হয়েছে কিনা তেমন আলামত এখনো আমরা পাইনি বলে জানান তিনি।

মানবকণ্ঠ/ইএস/আরবি