manobkantha

ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় উসকানি বন্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় উসকানি বন্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

শীতের শুরুতে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইসলামী ওয়াজ মাহফিল শুরু হয়েছে।  কিছু কিছু মাহফিলে সরকারবিরোধী প্রচারণাসহ ধর্মীয় উস্কানি দেওয়ার ঘটনা ঘটছে।  এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করার পাশাপাশি এ ধরনের উস্কানি বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থাগ্রহণের সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি।

রোববার (৫ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়। একইসঙ্গে এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে চিঠি দিতে বলা হয়েছে।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে কমিটির সদস্য মনোরঞ্জন শীল ওয়াজ মাহফিলে সাম্প্রদায়িকতা ও উসকানিমূলক বক্তব্যের প্রসঙ্গটি তোলেন।  তিনি তার নির্বাচনী এলাকার একটি উদাহরণ দিয়ে বলেন, কোনও কোনও ক্ষেত্রে ওয়াজ মাহফিলে সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়া হয়।  এ সময় কমিটির অন্য সদস্যরাও এ বিষয়ে একমত পোষণ করেন।  তারা জানান, সম্প্রতি ওয়াজ মাহফিলে রাজনৈতিক বক্তব্য, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হয় এমন উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়া হচ্ছে।  পরে কমিটি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে।

এছাড়া দেশের প্রতিটি সংসদীয় আসনে মসজিদের মেরামত ও সংস্কার করার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয় হতে বার্ষিক ১০ লক্ষ টাকা, মাদ্রাসা এবং মন্দিরের জন্য ৫ লক্ষ টাকা করে বরাদ্দ রাখার সুপারিশ করে কমিটি।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মো. হাফেজ রুহুল আমীন মাদানী। বৈঠকে কমিটির সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, জিন্নাতুল বাকিয়া, তাহমিনা বেগম ও রত্না আহমেদ অংশগ্রহণ করেন।

মানবকণ্ঠ/এসকে