হজযাত্রীদের পাসপোর্টের মেয়াদ ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৬ মে ২০২২, ২১:৩৪

চলতি বছর যারা হজে যাবেন তাদের পাসপোর্টের মেয়াদ ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে বলে জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, পাসপোর্টে হজযাত্রীর জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে জন্মনিবন্ধন সনদ) সঠিকভাবে উল্লেখ রয়েছে কি না তা-ও নিশ্চিত করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সৌদি সরকারের নীতি অনুযায়ী ২০২২ সালের হজযাত্রীদের পাসপোর্টের মেয়াদ ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের নতুন পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে হবে। পাসপোর্টে হজযাত্রীর জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে জন্মনিবন্ধন সনদ) সঠিকভাবে উল্লেখ রয়েছে কিনা তা-ও নিশ্চিত করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবছর যারা হজে যাবেন তাদের জন্য বেশ কয়েকটি নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, সরকারি ব্যবস্থাপনাধীন বিদ্যমান নিবন্ধিত হজযাত্রীদের নিবন্ধন পয়েন্ট বা কেন্দ্রের মাধ্যমে (পাসপোর্ট চেঞ্জ অপশন ব্যবহার করে) পাসপোর্ট পরিবর্তনের আবেদন করে তথ্য হালনাগাদ করতে হবে।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদেরও স্ব স্ব এজেন্সির মাধ্যমে (পাসপোর্ট চেঞ্জ অপশন ব্যবহার করে) ন্যূনতম ২০২৩ সালের ৪ জানুয়ারি মেয়াদসংবলিত পাসপোর্টের তথ্য হালনাগাদের আবেদন করতে হবে। সময়-স্বল্পতার কারণে এজেন্সিভিত্তিক হজযাত্রীর সংখ্যা নির্ধারণের সুবিধার্থে পাসপোর্টের মেয়াদ জটিলতার কারণে হজযাত্রীর প্যাকেজ স্থানান্তর বা নিবন্ধন স্থানান্তর কার্যক্রম ব্যাহত হবে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে আশ্বস্ত করা হয়েছে।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীর ভিসাযুক্ত পাসপোর্টের পেছনে মোয়াল্লেম নম্বর, মক্কা বা মদিনার আবাসনের ঠিকানাসংবলিত প্রিন্টেড স্টিকার সংযুক্ত করতে হবে। প্রিন্টেড স্টিকার সংযুক্ত করা সম্ভব না হলে কমপক্ষে হাতে লেখা তথ্য সংযুক্ত করতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট হজযাত্রীদের জেদ্দা বা মদিনা বিমানবন্দর থেকে সৌদি কর্তৃপক্ষ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে পারে এবং সংশ্লিষ্ট এজেন্সির হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি বাতিল করে দিতে পারে।


poisha bazar