শেখ হাসিনার মানবতার কাছে '৭১ শুকুনদের ষড়যন্ত্র খড়কুটোর মতো উড়ে যাবে: আব্দুর রহমান

- ছবি: প্রতিবেদক

poisha bazar

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৪ মে ২০২১, ১৩:২২

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, করোনার এই মহামারী সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের ১৮ কোটি মানুষকে বাঁচানোর জন্য প্রাণপন লড়াই করে যাচ্ছেন। যেখানে মানুষের খাবার তুলে দেবার জন্য তার ঘুম নাই, কই থেকে টিকা আসবে, কিভাবে টিকা মানুষের মাঝে পৌঁছাবে তা নিয়ে যখন তার ঘুম নাই তখন '৭১ শুকুনেরা পিছন দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চায়। আজকে তাদের এই অভিলাষ বাস্তবায়ন হবে না। শেখ হাসিনার মানবতার কাছে ওদের এই ষড়যন্ত্র খড়কুটোর মতো উড়ে যাবে।

মঙ্গলবার(৪ মে) সকালে খামারবাড়ির কেআইবি মাঠ প্রাঙ্গনে কৃষক লীগের উদ্যোগে আয়োজিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

তিনি বলেন, যারা শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করবে ধর্মীয় উম্মাধনা দিয়ে, বিদেশ থেকে অর্থ দিয়ে, নতুন করে বদরের যুদ্ধ করতে চায় কিন্তু তারা জানে না শেখ হাসিনার ডাকে তার নেতাকর্মীরা পিছপা হয় না। তারা পেছন দিয়ে ছুরিকাত করতে পারবে না। এই শক্তি মাথা নাড়া দিয়ে উঠতে পারবে না। ওরা আজকে ক্ষমতার উম্মাধনা মেতে উঠেছে। শাপলার চত্বরে জড়ো হওয়ার ডাক দেয়। এই সরকার উৎখাত করতে চায়। বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য ভেঙ্গে দিতে চায়। তাদের মূলত লক্ষ হলো রাষ্ট্র ক্ষমতার।

তিনি আরো বলেন, আসুন আগে মানুষকে বাঁচাই। তারপর দুর্যোগ মোকাবিলায় শেষে রাজনীতি করি। শিক্ষা নেন, আপনাদের কৃষক দল আছে না? এই কৃষক লীগের কাছে শিখুন, কি করে মানুষের পাশে যেতে হয়।

কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দের সভাপতিত্বে অনিষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সীমিত হয়ে পড়েছে। আমরা মানবিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র ভয় পায় না, সকল ষড়যন্ত্র আওয়ামী লীগ প্রতিহত করবে।

বাহাউদ্দিন নাছিম আরও বলেন, আওয়ামী লীগ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে যাবে। যত অপরাজনীতি আসুক, ধর্মব্যবসায়ী আসুক, তারা ষড়যন্ত্র করে সফল হবে না।

তিনি বলেন, ১৭ কোটি মানুষের আকাঙ্খাকে যারা দাবিয়ে রাখতে চায় তারা সফল হবে না। বাংলাদেশকে আফগানিস্তান, সুদান, ইয়েমেন বানানো যাবে না। আমারা পারি, আমরাই পারবো শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। আমরা সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে নিয়ে এগিয়ে যাবো। বাংলাদেশ হবে বিশ্বের উন্নত, সম্বৃদ্ধশালী দেশ।

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সতর্কতামূলক কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে করোনার ভয়াল থাবা থেকে দেশের মানুষকে রক্ষার চেষ্টা করতে হবে এবং সবাইকে মানুষের পাশে দাড়াতে হবে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউকে মোকাবেলা করতে সক্ষম হব। করোনার ভয়ংকরী রূপ, অজানা শত্রুর বিরুদ্ধে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও পরামর্শে সকল ভয়ভীতি উপেক্ষা করে স্বাস্থ্য বিধি মেনে আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি আরো বলেন, কৃষক দরদী - মানব দরদী সংগঠন হিসেবে বাংলাদেশ কৃষক লীগ ইতিমধ্যে দেশের জনগণের প্রশংসা কুড়িয়েছে।

কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. উম্মে কুলসুম স্মৃতির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বাবু সুজিত রায় নন্দী বলেন, করোনা মহামারী বৈশ্বিক সমস্যা। নেত্রীর নিদের্শে দল কাজ করে যাচ্ছে। অাজকে অপরাজনীতি চলছে। আমাদের নেত্রী মানবিক। মানবতার প্রশ্নে আমাদের কোনো রাজনীতি নাই। আমরা বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছিয়ে দিচ্ছি। এই করোনাকালে ষড়যন্ত্র চলছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে কেউ ষড়যন্ত্র করে সফল হবে না।

আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, করোনার এই কঠিন সময়ে দেশের মানুষের যাতে কষ্ট না তার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। কৃষক লীগের নেতাকমীরা সারা দেশে ধান কেটে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী মেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের মানুষের জন্য আওয়ামীলীগসহ কৃষক লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন।

ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানের কৃষক লীগের সহ-সভাপতি শেখ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, হোসনে আরা বেগম এমপি, কৃষিবিদ ড. নজরুল ইসলাম, কৃষিবিদ শাখাওয়াত হোসেন সুইট, মাকসুদুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটু, এ্যাডভোকেট শামিমা শাহরিয়ার এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. গাজী জসিম উদ্দিন, আসাদুজ্জামান বিপ্লব, কৃষিবিদ ড. হাবিবুর রহমান মোল্লা, সৈয়দ সাগিরুজ্জামান শাকীক, নূরে আলম সিদ্দিকী হক, অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম পানু, হিজবুল বাহার রানা, অর্থ সম্পাদক আলহাজ্জ নাজির মিয়া, দপ্তর সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য এ্যাড. জহির উদ্দিন লিমন, লায়ন মোঃ আহসান হাবিব, ডা. মজিবুর রহমান মিয়াজী প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এমএ






ads
ads