লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে পথে বেড়েছে মানুষ, যানবাহনও


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১২:০৪,  আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১২:০৯

দেশে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠিকাতে সরকারের ঘোষিত সপ্তাহব্যাপী সর্বাত্মক লকডাউনের দ্বিতীয় দিন চলছে আজ (১৫ এপ্রিল)। লকডাউন শুরু থেকেই বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপর থাকলেও নিষেধাজ্ঞা না মানার কিছুটা প্রবণতা লক্ষ্য করা গেছে প্রথম দিন থেকেই। দ্বিতীয় দিনে রাজধানীতে মানুষের আনাগোনাও বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর আগারগাঁও, শিশুমেলা, আসাদ গেট, ধানমন্ডি, পান্থপথ ও কারওয়ান বাজার এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, জরুরি সেবা ছাড়া অন্যান্য গাড়িকে থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তারা মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণের চেষ্টাও করছেন।

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ঢাকার প্রবেশদ্বার আমিন বাজারে দীর্ঘ যানবাহনের সারি দেখা যায়। এছাড়া রাজধানীর সড়কে যানবাহনের বেশ চাপের সাথে বেড়েছে সাধারণ মানুষের চলাচলও।

এ সময় দেখা যায়, ‘মুভমেন্ট পাস’ ছাড়া কাউকে চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না। বিভিন্ন প্রয়োজনে যারা ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে বেরিয়েছেন তাদের আটকিয়ে করা হচ্ছে জিজ্ঞাসাবাদ; সন্তোষজনক উত্তর মিললেই কেবল তাদের ছাড়া হচ্ছে। অন্যদের রাখা হচ্ছে অপেক্ষায়।

সড়কে চলাচলকারী লোক যদি জরুরি সেবার সঙ্গে যুক্ত থাকেন তাদেরই শুধু চেকপোস্ট অতিক্রম করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। আর যারা জরুরি সেবার আওতায় নন তাদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তবে, কিছু ক্ষেত্রে নিছক ঘুরতে কিংবা শখের বশেও মানুষকে ঘরের বাইরে বের হতে দেখা গেছে। অনিয়ম বেশি লক্ষ করা গেছে কিছু পাড়া-মহল্লায়। সেখানে অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ঘরের বাইরে বের হলেও বিষয়টি তদারকি করতে দেখা যায়নি তেমন কাউকেই।

অন্যদিকে রাজধানীর বিভিন্ন গলির মুখে বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড তৈরি করেছে ডিএমপি। এ ছাড়া স্থানীয় বাসিন্দারা অনেক গলির মুখে প্রতিবন্ধক গড়ে তুলেছেন। শুধু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনার জন্য স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা লোকদের চলাফেরা করতে দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত চলতি বছরের প্রথম লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। সেই সাত দিনের লকডাউনে জনগণের উদাসীনতা দেখেই ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত দ্বিতীয় দফায় সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করে সরকার।

মানবকণ্ঠ/এনএস






ads
ads