নয় মাসে মেট্রোরেলের অগ্রগতি ১১ শতাংশ

নয় মাসে মেট্রোরেলের অগ্রগতি ১১ শতাংশ
- সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ২৩:৫৯

রাজধানী ঢাকার মেট্রোরেল নির্মাণ কাজে করোনার বিরূপ প্রভাব পড়েছে করোনা ভাইরাসের। মহামারীকালের শুরুতে থমকে যায় এর নির্মাণযজ্ঞ। নির্মাণ শ্রমিক, বিদেশি পরামর্শক ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারাও দেশে ফিরে যান। ফলে অনেকটা ভাটাপড়ে নির্মাণ কাজে। করোনার এই দীর্ঘ ৯ মাসে সরকারের অগ্রাধিকার এই প্রকল্পের অগ্রগতি হয়েছে ১১.৭ শতাংশ। এতে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে মেট্রো চলাচল নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে রাজধানীর যানজট কমাতে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত উড়ালপথে ২০.১০ কিলোমিটার মেট্রোরেল নির্মাণ করা হচ্ছে। দুই ভাগে ভাগ করে নির্মাণাধীন প্রকল্পটির প্রথম অংশ উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৭৮.৩৮ শতাংশ। আর আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত অংশের হয়েছে ৪৯.৪৭ শতাংশ। ইলেক্ট্রনিক ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক (রেলকোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি হয়েছে ৩৪.৮২ শতাংশ। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজের সার্বিক গড় অগ্রগতি হয়েছে ৫৫ দশমিক ১৯ শতাংশ।

সরেজমিন আগারগাঁও, মিরপুর ও পল্লবী এলাকায় গেলে চোখে পড়বে, দীর্ঘ উড়ালপথ। মূল সড়ক থেকে প্রায় ১৩ মিটার উঁচুতে এই পথে বসছে রেললাইন। চলছে স্টেশন নির্মাণ, বিদ্যুৎ-সংযোগসহ অন্যান্য কর্মযজ্ঞ। শ্রমিকরাও নানা কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। কেউ রেললাইন বসানোর কাজ করছেন আবার কেউ কেউ বিদ্যুৎ ব্যবস্থার কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। তবে উত্তরের অংশের তুলনায় দক্ষিণা পাশে কাজের গতি অনেকটা কম বলে মনে করা হচ্ছে। তবে কাওরান বাজার সার্ক ফোয়ারা থেকে বাংলামোটরের দকে ভায়াডাক্ট নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে।

প্রকল্প সূত্র জানিয়েছে, মেট্রোরেল নির্মাণ কাজের প্যাকেজগুলোর মধ্যে ডিপো এলাকার ভ‚মি উন্নয়ন (প্যাকেজ-১) শতভাগ শেষ হয়েছে। ডিপো এলাকার পূর্ত কাজের (প্যাকেজ-২) অগ্রগতি হয়েছে ৭৭ শতাংশ। আর প্যাকেজ-৩ ও ৪ (উত্তরা উত্তর থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১.৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট ও ৯টি স্টেশন নির্মাণ) এর কাজ ২০১৭ সালের ১ আগস্ট শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোরিং, টেস্ট পাইল, মূল পাইল, পাইল ক্যাপ, আই-গার্ডার, প্রিকাস্ট সেগমেন্ট কাস্টিং ও পিয়ার হেড নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। ১১.৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্টের মধ্যে ১১.৩০ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট দৃশ্যমান হয়েছে। ৯টি স্টেশনের সব-স্ট্রাকচার নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের কংকোর্স ছাদ নির্মাণ সমাপ্ত হয়েছে।

বর্তমানে পল্লবী, মিরপুর ১১, মিরপুর-১০, কাজীপাড়া এবং শ্যাওড়াপাড়া স্টেশনের কংকোর্স ছাদ নির্মাণের কাজ চলছে। উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের প্লাটফর্ম নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। উত্তরা উত্তর স্টেশনের প্লাটফরম নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে আছে। পল্লবী, মিরপুর ১১ এবং কাজীপাড়া স্টেশনে সমাপ্তকৃত (আংশিক) কংকোর্সের ওপর প্লাটফর্ম নির্মাণ শুরু হয়েছে। উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনে স্ট্রিল স্ট্রাকচার ইরেকশনের কাজ চলছে।

 






ads