• বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১
  • ই-পেপার

২৪ ঘণ্টায় ১৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৮৯০

- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৩ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৩২

চীনের উহান থেকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) বাংলাদশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯০ জন।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেলে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৭ হাজার ৮৩৩ জন। এছাড়া একই সময়ে নতুন করে আরও ৮৯০জন ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ায় মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৫ লাখ ২৪ হাজার ৯১০ জন।

এদিন সুস্থ হয়েছেন ৮৪১ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৬৯ হাজার ৫২২ জন।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। সে হিসাবে কোভিড-১৯ শনাক্তের ৩১১তম দিন পার করছে বাংলাদেশ।

এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটারস এর সর্বশেষ তথ্য বলছে, বুধবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯ কোটি ২০ লাখ ৬ হাজার ১৬৩ জন, মোট মারা গেছেন ১৯ লাখ ৭০ হাজার ৩০ জন।


বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৩৩ লাখ ৬৮ হাজার ২২৫ জন। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৫৯৯ জন।

ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। ভারতে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৪ লাখ ৯৫ হাজার ৮১৬ জন। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৫১ হাজার ৫৬৪ জন।

ব্রাজিল আছে তৃতীয় অবস্থানে। ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৮১ লাখ ৯৫ হাজার ৬৩৭ জন। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৪ হাজার ৭২৬ জন।

তালিকায় রাশিয়ার অবস্থান চতুর্থ। ফ্রান্স পঞ্চম। যুক্তরাজ্য ষষ্ঠ। তুরস্ক সপ্তম। ইতালি অষ্টম। স্পেন নবম। জার্মানি দশম। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৭তম।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে।

করোনার প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে।

মানবকণ্ঠ/এসকে






ads