বিজিবি ও বিজিপি মধ্যে পতাকা বৈঠক

৯ বাংলাদেশি জেলেকে ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার

ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার
- ছবি: প্রতিবেদক

poisha bazar

  • মো. শাহীন, টেকনাফ
  • ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১৭:০৭

মিয়ানমারে ১৫ দিন কারাভোগ শেষে ৯ বাংলাদেশি জেলেকে ফেরত আনা হয়েছে। বুধবার (২৪ নভেম্বর) ১১টায় বিজিবি ও বিজিপি এর মধ্যে মিয়ারমারের মংডু শহরে এক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে এদের ফেরত দেয়া হয় বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান।

ফেরত জেলেরা হলেন- নুরুল আলম (৪৮), ইসমাইল ওরফে হেসেন, মোঃ ইলিয়াছ (২১), মোঃ ইউনুছ (১৬), মোহাম্মদ আলম ওরফে কালু, সাইফুল, সলিম উল্লাহ, নুর কামাল ও মো. লালু মিয়া (২৩)। তাঁরা সবাই টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।

বিজিবি জানায়, বুধবার সকাল ১১ টায় মিয়ানমারের অভ্যন্তরে মংডুতে ১নং এন্ট্রি-এক্সিট পয়েন্ট টেকনাফ ২ বিজিবি এবং সেদেশের ৪ বর্ডার গার্ড পুলিশের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষে ১০ সদস্যের নেতৃত্ব দেন বিজিবির টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. ফয়সল হাসান খান। মিয়ানমারের ৭ সদস্যের নেতৃত্ব দেন মিয়ানমারের ৪ বর্ডার গার্ড পুলিশ ব্রাে র অধিনায়ক লে.কর্নেল জো লিন অং।

সকাল সাড়ে ১০ টায় পৌরসভার জালিয়া পাড়াস্থল বাংলাদেশ-মিানমার ট্রানজিট ঘাটে থেকে বিজিবির প্রতিনিধিদলটি মিয়ানমারের যান। বৈঠক শেষে দুপুর ২ টার দিকে ৯ জন জেলেকে নিয়ে ফিরে আসেন। এসময় ফেরত আসা জেলেদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ১৪ দিনের জন্য প্রতিষ্টানিক কোয়ারিন্টিনে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে ট্রানজিত জেটি ঘাটে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক লে.কর্ণেল মো. ফয়সল হাসান খান। এসময় উপস্থিতি ছিলেন টেকনাফ ২ বিজিবির উপ-অধিনায়ক মেজর রুবায়ৎ কবীর, অপারেশন অফিসার মেজর মো. রাহুল আসাদ, টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ হাফিজুর রহমান প্রমুখ

তিনি বলেন, ‘১০ নভেম্বর সাগরে মাছ শিকারের সময় ইঞ্জিন বিকল হয়ে মিয়ানমার জলসীমানায় ঢুকে পরে। এসময় সেদেশের বিজিপির হাতে আটক হন। পরে বিজিবির পক্ষ থেকে তাদের ফেরত চেয়ে একটি চিঠি পাঠানো মিয়ানমার কৃতপক্ষর কাছে। এরপর বিজিবি ও উর্দ্ধতনের প্রচেষ্টায় তাদের জেলেদের হস্তান্তর করতে সম্মত হয়। তারই অংশ হিসেবে বুধবার মিয়ানমার অভ্যন্তরে বৈঠকের মাধ্যমে তাদের ফেরত আনা হয়। তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ১৪ দিনের জন্য প্রাতিষ্টানিক কোয়ারিন্টানে পাঠানো হয়েছে। কোয়ারিন্টান শেষে পরবর্তী প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

স্থানীয় জেলেরা জানায়, ১০ নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে বঙ্গোপসাগরের মোহনায় টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ গুলা পাড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ আমিনের মালিকানাধীন একটি নৌকায় কালা মাঝির নেতৃত্বে নয়জন জেলে সাগরে মাছ শিকারে যান। পরে হঠাৎ মিয়ানমারের বিজিপি এসে সাগরের মোহনা থেকে তাদের ধরে নিয়ে যায়। রাতে খবরটি এলাকায় জানাজানি হয়।

মানবকণ্ঠ/এইচকে

 






ads