দেশে নতুন মাদক ‘ফেনইথাইলামিন’ উদ্ধার

- ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • এম এম খালেদ, চট্টগ্রাম
  • ১২ আগস্ট ২০২০, ১৩:৫৬,  আপডেট: ১২ আগস্ট ২০২০, ১৪:০৯

চট্টগ্রাম নগরীতে এবার আর্বিভাব হল নতুন মাদক ফেনইথাইলামিন। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের তালিকা অনুযায়ী ক শ্রেণির মাদক ফেনইথাইলামিন। এতদিন ইয়াবা, হিরোইন, কোকেইনসহ অন্যান্য মাদক ধরা পড়লেও এবার প্রথমবারের মতো ধরা পড়েছে ফেনইথাইলামিন।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) নগরীর খুলশী থানাধীন ফয়েজ লেক এলাকায় অভিযান চালিয়ে ফেনইথাইলামিনসহ একজনকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

নতুন এই মাদকের আর্বিভারের ফলে চিন্তার বাজ পড়েছে প্রশাসন ও সচেতন মহলে। বর্তমান সময় আলোচিত মরননেশা ইয়াবার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন যেখানে হিমশিম খাচ্ছে, সেখানে ফেনইথালামিন মত 'ক' শ্রেণির নেশা কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করবে, এই নিয়ে চিন্তারভাজ সচেতন মহলে।

বিশিষ্ট সমাজকর্মী সুরেশ বড়ুয়া বাঙ্গালী মানবকন্ঠকে বলেন, বাংলাদেশে ইয়াবা, ফেন্সিডিলসহ নানা ক্ষতিকর মাদকে আসক্ত হয়ে প্রতিনিয়তই সুস্হ জীবন থেকে দূরে সরে যাচ্ছে বহু তরুণ, কিশোর-কিশোরীসহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ। সরকারি হিসেবে, দেশে মাদকাসক্তের সংখ্যা এখন অন্তত ৭০ লাখ। নতুন এই মাদক পরিবার ও সমাজের ওপর উদ্বেগজনক প্রভাব ফেলেছে। সরকার ইতিমধ্যে মাদক নির্মুলে কাজ করছে, ক্রসফায়ার মত বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড না করে, মাদকের গর্ড-ফাদার দের চেহারা উন্মোচন করে, প্রচলিত আইনে শাস্তি দেওয়া হোক।

জানা যায়, ফয়েজ লেক এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭৫০ গ্রাম ফেনইথাইলামিনসহ ফিরোজ খানকে আটক করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যে পটিয়া এলাকায় তার বাড়ি থেকে আরও ২৫ গ্রাম ফেনইথাইলামিন উদ্ধার করা হয়। এসব মাদকের বাজারমূল্য আনুমানিক ১২ কোটি টাকা।

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান মামুন মানবকন্ঠকে বলেন, ফেনইথাইলামিন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের তালিকা অনুযায়ী ক শ্রেণির মাদক। সাধারণত বাংলাদেশে এ ধরনের মাদক তৈরি হয় না। আমাদের কাছে মাদক হস্তান্তরের তথ্য ছিল। তথ্য অনুযায়ী অভিযান চালিয়ে ফেনইথাইলামিন আটক করা হয়। জানা মতে ফেনইথাইলামিন এর আগে কখনও আটক হয়নি।

লে. কর্নেল মো. মশিউর রহমান জুয়েল মানবকন্ঠকে বলেন, আজিজ নামে ইউএসটিসি বিশ্ববিদ্যালয়ে এক চাকুরিজীবির যোগসাজশে এ মাদক আনা হতো বলে স্বীকার করেছে। তবে আটক ফেনইথাইলামিনগুলো কোত্থেকে এসেছে বা কার কাছে যাচ্ছিল তা বের করার চেষ্টা করছি। এর সঙ্গে কারা কারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে এবং এই মাদকের বিরুদ্ধেও কঠোর আইন প্রয়োগ করা হবে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads







Loading...