ধরা না পড়তে বার বার অবস্থান বদলাচ্ছিলেন সাহেদ

- ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৫ জুলাই ২০২০, ১২:০০,  আপডেট: ১৫ জুলাই ২০২০, ১২:৪০

করোনার ভুয়া রিপোর্ট দেয়াসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ করে দেয়া রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় সাতক্ষীরার সীমান্ত এলাকা থেকে অবৈধ অস্ত্রসহ গ্রেফতার হয়েছেন। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরা না পড়তে বার বার অবস্থান বদল করছিলেন বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

বুধবার (১৫ জুলাই) ভোরে সাড়ে পাঁচটায় সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। এরপর সাহেদকে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় এনে র‍্যাব সদর দফতরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সাহেদ করিমকে গ্রেফতারের পর র‍্যাবের এডিজি (অপারেশন) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সারোয়ার বলেছেন, সাতক্ষীরায় তার অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর গতরাত ২টা থেকে অভিযান শুরু করলেও ভোর ৫টা ১০ মিনিটে তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়। এর আগে বারবার অবস্থান পরিবর্তনের কারণে বেশ কয়েকবার সাহেদের কাছাকাছি গিয়েও তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

সাতক্ষীরা থেকে সাহেদকে বহনকারী র‌্যাবের হেলিকপ্টার বুধবার সকাল ৯টার দিকে তেজগাঁও বিমানবন্দরে এসে পৌঁছলে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

র‍্যাবের এডিজি বলেন, ঘন ঘন অবস্থান পরিবর্তনের কারণে সাহেদের কাছাকাছি কয়েকবার পৌঁছানো সম্ভব হলেও গ্রেফতার এড়াতে পেরেছেন তিনি। গত ৯ দিনের টানা চেষ্টার পর অবশেষে বুধবার ভোর ৫টা ১০ মিনিটে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কোমরপুর গ্রামের লবঙ্গবতী নদীতীর সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, সাহেদ স্থানীয় দালালের মাধ্যমে সীমান্ত পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করছিলেন। আমরা কিছু দালালের নাম পেয়েছি, এগুলো নিয়ে আমরা কাজ করছি। তিনি বোরকা পরে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

গত ৬ জুলাই করোনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে র‍্যাব উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায়। এরপর রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখা সিলগালা করে দেয়া হয়। ৭ জুলাই করোনা পরীক্ষা না করেই সার্টিফিকেট প্রদানসহ বিভিন্ন অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে র‌্যাব।

মামলায় রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিমকে প্রধান আসামি করে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয় এজাহারে। এরপর থেকেই পালিয়ে ছিলেন সাহেদ। তাকে গ্রেফতারে দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায় র‌্যাব। অবশেষে সাতক্ষীরা থেকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় তারা।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...