সাবরিনার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানে নামছে দুদক


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৩ জুলাই ২০২০, ১৯:৪৮,  আপডেট: ১৩ জুলাই ২০২০, ২০:১১

নমুনা পরীক্ষা ছাড়াই প্রায় ১৬ হাজার ভুয়া করোনা রিপোর্ট দেয়া জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীর অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানে নামছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১৩ জুলাই) কমিশন থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন দুদকের পরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

প্রণব কুমার জানান, সরকারি চাকরিতে (জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট-এ কর্মরত) বহাল থেকে তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর সহায়তায় প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে করোনা রোগীদের নমুনা সংগ্রহের অভিযোগ রয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করে ১৫,৪৬০টি ভুয়া মেডিক্যাল রিপোর্ট প্রস্তুত ও সরবরাহ করে ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

এর আগে কমিশনের সংশ্লিষ্ট অনুবিভাগের বিভিন্ন ব্যক্তি, গণমাধ্যম, ভার্চুয়াল মাধ্যমসহ নানা উৎস থেকে ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ সংগ্রহ করে। এসব তথ্য-উপাত্তসংবলিত অভিযোগগুলো কমিশনের দৈনিক ও সাম্প্রতিক অভিযোগ সেল কমিশনে উপস্থাপন করলে কমিশন এ সিদ্ধান্ত নেয়।

অপরদিকে নমুনা পরীক্ষা না করেই করোনার ভুয়া পজিটিভ-নেগেটিভ রিপোর্ট দেয়া রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেড এবং রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের বিরুদ্ধেও অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুদক। দুদকের উপপরিচালক মো. আবু বকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি অনুসন্ধান টিম এ কাজ পরিচালনা করবে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...