এবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজিকে শোকজ

- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১২ জুলাই ২০২০, ২০:০৭,  আপডেট: ১২ জুলাই ২০২০, ২০:২২

রিজেন্ট হাসপাতালকাণ্ডে একটি বিজ্ঞপ্তি দেয়াকে কেন্দ্র করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদকে শোকজ করা হয়েছে।

রোববার (১২ জুলাই) সন্ধ্যায় তাকে এ নোটিশ দেয়া হয়েছে।

নোটিশে রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই চিঠির বিষয়ে ব্যাখ্যা জানাতে বলা হয়েছে। এছাড়া মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলতে কী বোঝানো হয়েছে এবং রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের আগে কী কী বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে তা জানাতে বলা হয়েছে।

এর আগে শনিবার নমুনা পরীক্ষা না করেই করোনার ভুয়া পজিটিভ-নেগেটিভ রিপোর্ট দেয়াসহ নানা প্রতারণা ও অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ করে দেয়া বহুল আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজি গ্রুপের প্রতারণার বিষয়ে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি রিজেন্ট হাসপাতালের প্রতারণার বিষয়ে কিছু আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এখন প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী মো. সাহেদ করিমের বিভিন্ন প্রতারণার খবরও বেরিয়ে আসছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তার বিষয়ে আগে অবহিত ছিল না। এ বছরের মার্চে আকস্মিকভাবে দেশে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বেড়ে যায়। কোনো বেসরকারি হাসপাতাল কোভিড রোগী ভর্তি করতে চাইছিল না। আবার অনেক রোগীর পছন্দ থাকত বেসরকারি হাসপাতাল বা ক্লিনিক। এমন সময় রিজেন্ট হাসপাতাল ঢাকার উত্তরা ও মিরপুরের দুটি ক্লিনিককে কোভিড হাসপাতাল হিসেবে ডেডিকেটেড করার আগ্রহ প্রকাশ করে। এর পরই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতাল বিভাগ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের উদ্যোগ নেয়। তবে ক্লিনিক দুটি পরিদর্শনের সময় চিকিৎসার পরিবেশ উপযুক্ত দেখতে পেলেও ক্লিনিক দুটির লাইসেন্স নবায়ন ছিল না। বেসরকারি পর্যায়ে কোভিড রোগীদের চিকিৎসা সুবিধা সৃষ্টির মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে অপর বেসরকারি হাসপাতালেগুলোকেও উৎসাহ দেওয়ার লক্ষ্যে লাইসেন্স নবায়নের শর্ত দিয়ে রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে ২১ মার্চ সমঝোতা স্মারক সই করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এতে আরও বলা হয়, সমঝোতা স্মারক সই করার আগে পরিচয় থাকা তো দূরের কথা, টক শো ছাড়া কখনো মো. সাহেদ করিমকে দেখেননি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...