ক্রেতা-বিক্রেতাদের সজাগ থাকতে হবে: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

ক্রেতা-বিক্রেতাদের সজাগ থাকতে হবে: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী
- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৯ জুলাই ২০২০, ২১:৫৫

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে পশুর ক্রেতা-বিক্রেতাদের জুলুমের হাত থেকে বাঁচতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) বিকেলে সচিবালয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে তার দপ্তরে অনলাইনে পশু কেনাবেচা এবং বাংলাদেশ রেলওয়ের মাধ্যমে পরিবহন সংক্রান্ত এক অনলাইন সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, গবাদিপশুর পরিবহনে চাঁদাবাজি করা যাবে না। সিন্ডিকেট করে ট্রাক আটকানো বন্ধ করতে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে। খামারি ও গবাদিপশু বিক্রেতারা যেনো কোনভাবেই হয়রানির শিকার না হয়।

মন্ত্রী বলেন, গবাদিপশুর কেনাবেচা যতটা সম্ভব অনলাইন প্লাটফর্মে করতে হবে। এ বিষয়টি তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে দিতে হবে। অনলাইনে গবাদিপশুর দাম নির্ধারণে মাঠ পর্যায়ের প্রাণিসম্পদ দপ্তরগুলোকে সহায়তা করবে। ইতিমধ্যে তারা প্রান্তিক খামারিদের উৎসাহিত করছে।

ডিজিটাল প্লাটফর্মে বিভাগের অন্তত ৩০ শতাংশ গবাদিপশু কেনাবেচার প্রচেষ্টা থাকবে বলেও কমিশনাররা সভায় আশ্বস্ত করেন। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য গণমাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালানো প্রয়োজন বলেও তারা সভায় অভিমত দেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ, অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবদুল জব্বার শিকদার, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকারসহ সব বিভাগীয় কমিশনার এবং বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উপপরিচালকরা সভায় অংশ নেন।

মানবকণ্ঠ/আরএস

 





ads






Loading...