দুই আসনের উপনির্বাচন পেছানোর দাবি নাকচ

- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৭ জুলাই ২০২০, ১৫:০৫

করোনা পরিস্থিতিতে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচন পেছানোর যে দাবি বিএনপি জানিয়েছে তা নাকচ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসি সচিব মো মো. আলমগীর বলেছেন, আসন দুটির উপনির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই। তাই বিএনপির দাবি রক্ষা করা সম্ভব নয়।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দুপুরে নির্বাচন কমিশনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান। এর আগে বিএনপির দুইজন প্রতিনিধি ইসিতে গিয়ে দুই আসনের উপনির্বাচন করোনাভাইরাস ও বন্যার কারণে অগ্রহণযোগ্য দাবি করে পেছানের দাবি জানান।

বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, নির্বাচন না পেছালে ব্যালট পেপারে আমাদের প্রার্থীর প্রতীক না রাখারও জন্যও ইসি সচিবকে বলেছি। কিন্তু সেটা সম্ভব হবে কি-না জানি না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, বিএনপি তাদের আবেদনে নির্বাচন পুনর্বিবেচনার দাবি জানিয়েছে। কিন্তু তারা একথা খুব ভালো করেই জানেন, যে নির্বাচন পেছানোর কোনো সুযোগ নেই। কেননা, এখন নির্বাচন পেছালে সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে মামলা করা যাবে।

তিনি বলেন, কোনো আসন শূন্য হলে তার পরবর্তীতে ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করতে হয়। দৈবদুর্বিপাকের কারণে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) আরো ৯০ দিন সময় নিতে পারে। সেই সময়ও পার হয়ে গেলে সুপ্রিম কোর্ট থেকে ব্যাখ্যা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

সংবিধান অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আর সময় বাড়ানোর সুযোগ নেই। আর সুপ্রিম কোর্টে গেলে শুনানি হবে, এছাড়াও অন্যান্য প্রক্রিয়ার জন্য সে সময়ের প্রয়োজন সেটাও হাতে নেই। তাই আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত অনুযায়ী কমিশন ১৪ জুলাই ভোট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ব্যালট পেপারে বিএনপির প্রার্থীর প্রতীক না রাখার দাবি প্রসঙ্গে সচিব বলেন, আইন অনুযায়ী নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের একটা নির্দিষ্ট সময় থাকে। এই সময়ের পর আইনগতভাবে প্রার্থিতা প্রত্যাহার বা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াবার কোনো সুযোগ নেই।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...