কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গেছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গেছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গেছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৩ এপ্রিল ২০২০, ২১:১৩

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশে ইতোমধ্যে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গেছে। এটা যেন না বাড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সবাইকে ঘরে থাকতে হবে। করোনাভাইরাস মোকাবিলার মূল অস্ত্র ঘরে থাকা।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে নিজ বাসা থেকে যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের হাসপাতাল ও অন্য ব্যবস্থাপনাকে মজবুত করছি। কোনো দেশ লাখ লাখ মানুষের চিকিৎসা হাসপাতালে দিতে পারে না। তাই করোনাভাইরাস মোকাবিলার মূল অস্ত্র ঘরে থাকা এবং পরীক্ষা করা। যার মাধ্যমে যারা সংক্রমিত হয়েছে, চিহ্নিত হবে এবং তাদের আইসোলেশনে রাখা যাবে। তারা যেন অন্য কাউকে সংক্রমিত না করতে পারে। এটি সবচেয়ে বড় হাতিয়ার।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ, মিরপুর, বাসাবোসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় বেশি সংক্রমিত হয়েছে। এসব এলাকা থেকে যারা বিভিন্ন জেলায় গিয়েছে সেখানেও সংক্রমণ ছড়িয়েছে। আমাদের আরও কঠোর হতে হবে। লকডাউন পুরোপুরি মানা হচ্ছে না। বাজারে অনেক লোকজন ঘোরাঘুরি করছে। বাইরে অনেক মানুষ অযথা ঘোরাঘুরি করছে। এসব পরিহার করতে হবে।

জাহিদ মালেক বলেন, ১৭টি প্রতিষ্ঠানে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হচ্ছে। নতুন আরও চার-পাঁচশ ভেন্টিলেটর ও চার-পাঁচশ অক্সিজেনারেটর আনার ব্যবস্থা করছি। এছাড়া নতুন তিনটি আইসোলেশন সেন্টার ও ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করা হচ্ছে। এছাড়া বেশ কয়েকটি হাসপাতাল প্রস্তুত করার জন্য নিয়েছি। পাশাপাশি আরও কয়েকটি হাসপাতাল প্রস্তুত করতে বলেছি। এছাড়া বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজেগুলোও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী চিকিৎসার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি জেলায় যেসব বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে, তারাও এগিয়ে এসেছে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...