আরো ১৮ করোনা রোগী, জেনে নিন কে কোন এলাকার

আরো ১৮ করোনা রোগী, জেনে নিন কে কোন এলাকার

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৫ এপ্রিল ২০২০, ১৬:৪৭,  আপডেট: ০৫ এপ্রিল ২০২০, ২২:৫৬

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নতুন ১৮ জনের ভেতর ১২ জনই ঢাকার বাসিন্দা। এর মধ্যে বাকি পাঁচজন নারায়ণগঞ্জের আর একজন মাদারীপুরের।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানিয়েছে, আজ রোববার ৫ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে ৮৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকাতেই আক্রান্ত হয়েছেন ৫২ জন্য। এই ৫২ ব্যক্তির বাস রাজধানীর ২৯টি স্থানে। আর বাকি লোকজন দেশের ১১ জেলায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য প্রকাশ করেছে আইইডিসিআর।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানিয়েছে, আজ রোববার ৫ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে ৮৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকাতেই আক্রান্ত হয়েছেন ৫২ জন্য। এই ৫২ ব্যক্তির বাস রাজধানীর ২৯টি স্থানে। আর বাকি লোকজন দেশের ১১ জেলায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য প্রকাশ করেছে আইইডিসিআর।

সারা দেশে ৮৮ ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, যাঁদের জেলার নাম বলা হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর ৫২ জনসহ ঢাকা জেলায় ৫৪ জন আক্রান্তের তথ্য দিয়েছে আইইডিসিআর। তবে সুনির্দিষ্টভাবে আক্রান্ত ৫২ জন কোথায় থাকতেন সেই এলাকার নাম বললেও ২ জন আক্রান্তের এলাকার নাম দেওয়া হয়নি।

রাজধানীর ২৯টি স্থানে ৫২ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। স্থানগুলো হলো- ১. বাসাবোয়: ৯ জন। ২. মিরপুরের টোলারবাগ: ৬ জন। ৩. পুরান ঢাকার শোয়ারিঘাট: ৩ জন। ৪. বসুন্ধরা: ২ জন। ৫. ধানমন্ডি: ২ জন। ৬. যাত্রাবাড়ী: ২ জন। ৭. মিরপুর-১০: ২ জন। ৮. মোহাম্মদপুর: ২ জন। ৯. পুরোনো পল্টন: ২ জন। ১০. শাহ আলী বাগ: ২ জন। ১১. উত্তরা: ২ জন।

রাজধানীর বাকি ১৮টি স্থানে একজন করে করোনা রোগী পাওয়া গেছে। এ স্থানগুলো হলো বুয়েট এলাকা, সেন্ট্রাল রোড, ইস্কাটন, গুলশান, গ্রিনরোড, হাজারীবাগ, জিগাতলা, মিরপুর কাজীপাড়া, মিরপুর-১১, লালবাগ, মগবাজার, মহাখালী, নিকুঞ্জ, রামপুরা, শাহবাগ, উর্দু রোড ও ওয়ারী।

রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করেছে। আক্রান্তদের বেশির ভাগ আগে সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে ছিলেন।

তিনি বলেন, সর্বশেষ যে ব্যক্তি মারা গেছেন তিনি নারায়ণগঞ্জের অধিবাসী। তিনি পুরুষ, বয়স ৫৫। শনাক্ত ১৮ জনের মধ্যে ১৩টিই শনাক্ত করেছে আইইডিসিআর।

সেব্রিনা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় তিনজন আরোগ্য লাভ করেছেন। তাই এখন সংক্রমণ রয়েছে ৪৬ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকা শহরের মানুষের সংখ্যা বেশি। বেশির ভাগ আক্রান্তই বিভিন্ন ক্লাস্টারের অংশ। আক্রান্তদের মধ্যে বাসাবো এলাকার নয়জন। টোলারবাগ এবং অন্য এলাকা মিলিয়ে মিরপুরে ১১জন।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...