জ্বর, সর্দি-কাশিতে ১৫ জনের মৃত্যু, আইইডিসিআর বলছে করোনা নয়

করোনাভাইরাস
করোনাভাইরাস - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩১ মার্চ ২০২০, ২১:০২,  আপডেট: ৩১ মার্চ ২০২০, ২১:১১

গত দুই দিনে দেশের বিভিন্নে জেলায় করোনার উপসর্গ জ্বর, সর্দি-কাশি, শ্বাসকষ্ট ও গলাব্যথা নিয়ে অন্তত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে এসব ব্যক্তিরা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত নয়। ব্যক্তিদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়। কয়েকজনের নমুনা পরীক্ষা করে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের করোনায় মৃত্যু হয়নি।

৩ দিন ধরে জ্বরে ভোগার পর সোমবার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ৫১ বছর বয়স্ক এক ব্যক্তি মারা যান। একই দিনে শেরপুরের নলিতাবাড়িতে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভোগার পর এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়। সুনামগঞ্জে ৫৫ বছর বয়স্ক এক নারী শ্বাসকষ্টে মারা যান। জ্বর-সর্দিতে দিনাজপুরের বিরামপুরে ফরহাদ হোসেন নামে এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়। এছাড় নবাবগঞ্জে এক ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টাইন থেকে হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান। যশোর জেনারেল হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিটে ১২ বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়। হাজীগঞ্জের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর হোসেন জ্বর ও কাশিতে ভুগে মারা যান। মৌলভীবাজারর শ্রীমঙ্গল উপজেলায় জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে রোববার বরিশালে দুই জন, পটুয়াখালিতে একজন, মানিকগঞ্চে এক জন, ঢাকায় মোহাম্মদপুরে এক একজন, নওগাঁয় একজন এবং খুলানায় একজনের মারা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়।

এদিকে মঙ্গলবার বিকালে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বেশ কিছু মৃত্যু নিয়ে জনমনে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে যে, তারা করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা। আমরা তাদের মধ্যে কয়েকজনের নমুনা সংগ্রহ করি। সেই নমুনা পরীক্ষা করে তাদের কারো শরীরেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পাইনি। কারো মৃত্যু হলেই করোনাভাইরাস ভেবে আপনারা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হবেন না।

তবে আইইডিসিআর মৃতদের মধ্যে কতজনের নমুনা পরীক্ষা করেছে- ব্রিফিংয়ে সেই তথ্য জানাননি পরিচালক।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...