বস্ত্রমন্ত্রীর ফ্লু আক্রান্ত হওয়া উদ্বেগের : কাদের

বস্ত্রমন্ত্রীর ফ্লু আক্রান্ত হওয়া উদ্বেগের : কাদের
বস্ত্রমন্ত্রীর ফ্লু আক্রান্ত হওয়া উদ্বেগের : কাদের - ফাইল ছবি।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৯:৩৮

সিঙ্গাপুরে ১৩ দিন চিকিৎসা শেষে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। তবে এরপরেই তিনি আক্রান্ত হয়েছেন ফ্লু জ্বরে। রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট আইইডিসিআর বলছে, করোনার সাতটি ধরনের ২২৯-ই নামক ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

বর্তমানে সাধারণ জ্বর সর্দি কাশি নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি আছেন মন্ত্রী। '

এদিকে গোলাম দস্তগীর গাজীর ২২৯-ই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি উদ্বেগের বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মন্ত্রী।

কাদের বলেন, সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও রয়েছে করোনা নিয়ে আতঙ্ক। তবে মন্ত্রীর এখনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

তিনি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে কোনো ঘাটতি নেই। আমরা জানি এতে আমরাও আক্রান্ত হতে পারি, আমরাও ভিকটিম হতে পারি, আশঙ্কা অনেক বেশি। বাস্তবভিত্তিতে প্রমাণ অতটা এবং এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়ার বিষয় আছে, পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা যাক বিষয় কি। সেটি তো অবশ্যই উদ্বেগের বিষয়।

এদিকে, পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নন, তবে করোনার সাতটি ধরনের ২২৯-ই নামক ফ্লুতে আক্রান্ত বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট। তারা বলছে, সাধারণ ফ্লু হওয়ায় আইসোলেশনেরও প্রয়োজন নেই তার।

এর আগে, সিঙ্গাপুরে ১৩ দিন ফুসফুসের চিকিৎসা শেষে ২৪ জানুয়ারি দেশে ফেরেন পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। সম্প্রতি ভর্তি হয়েছেন বঙ্গবন্ধু হাসপাতালের একটি বিভাগে।

পরে মন্ত্রীর করোনা আক্রান্তের খবর ছড়িয়ে পরে। তবে বিষয়টি গুজব বলে উড়িয়ে দেয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট।

আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, এই ধরনের ফ্লুতে আইসোলেশনের কোনো প্রয়োজন নেই। এটি করোনা ভাইরাস নয় বরং ২২৯-ই নামের করোনার ভাইরাসের সাধারণ ফ্লুর একটি ধরণ।

দেশে এখন পর্যন্ত ৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, কারও মধ্যেই করোনার উপস্থিতি নেই। গুজবে কান না দিয়ে সন্দেহজনক যে কারো বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে খবর পরিবেশনের আহ্বান আইইডিসিরের।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads






Loading...