ইভিএমে ‘শূন্য গণনা’র প্রমাণ দেখিয়ে শুরু হবে ভোট

ইভিএমে ‘শূন্য গণনা’র প্রমাণ দেখিয়ে শুরু হবে ভোট
ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩১ জানুয়ারি ২০২০, ২০:০৮

নিয়ম অনুযায়ী ব্যালট বাক্স খালি দেখিয়ে ভোট শুরু করা হয়, কিন্তু এবার যেহেতু ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মাধ্যমে হচ্ছে, তাই ‘শূন্য গণনা’র প্রমাণ দেখিয়ে প্রত্যেক কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হবে।

শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইভিএম সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম পরিদর্শনে এসে এ তথ্য জানান ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম।

তিনি জানান, ইভিএম সিস্টেমে ব্যালট বাক্স নেই, তাই খালি বাক্স দেখানোরও সুযোগ নেই। এজন্য ভোট শুরুর আধা ঘণ্টা আগে ভোট শুরুর আধা ঘণ্টা আগে ইভিএম থেকে ‘শূন্য ভোট’ গণনার কাগজ প্রিন্ট করে দেখানো হবে। তারপর যথাসময়ে ভোটগ্রহণ শুরু হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম বলেন, আমরা শতভাগ প্রস্তুত। উত্তরের কেন্দ্রগুলোতে ১৫ হাজার ৭০০টি ইভিএম মেশিন পাঠানো হয়েছে। এখানে বুথের সংখ্যা ৭ হাজার ৮৫০টি। প্রতিটি বুথে ২টি করে ইভিএম থাকবে।

তিনি জানান, সাধারণ কেন্দ্রে ১৬ জন নিরাপত্তারক্ষী থাকবেন আর গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে থাকবেন ১৮ জন। এছাড়া র‌্যাব, বিজিবি, নির্বাহী, জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আছেন। আমরা ঢাকা শহরকে নিরাপত্তার চাদরে জড়িয়ে ফেলেছি। আমাদের ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে এসে ভোট দেবেন। এবারই প্রথম সম্পূর্ন ইভিএম-এ নির্বাচন হচ্ছে। আমি অনুরোধ করবো, সবাই যেন ভোট দিতে আসেন।

শুধু প্রিজাইডিং অফিসার এবং কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন বলেও জানান উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম।

অন্যদিতে, খিঁলগাও মডেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে সরঞ্জাম বিতরণ কার্যক্রম পরিদর্শনে আসেন দক্ষিণ সিটির রিটানিং কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন। এ সময় তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৭২১টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে বলেন, এ কেন্দ্রগুলো বিশেষ নজরদারিতে থাকবে।

ঢাকার দুই সিটিতে এবারই প্রথম ইভিএমের মাধ্যমে নির্বাচন হবে।উত্তর সিটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ জন। দক্ষিণে মোট ভোটার সংখ্যা ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

মানবকণ্ঠ/এসকে






ads