মিয়ানমারের বিভিন্ন পক্ষের মধ‌্যে সংলাপ প্রয়োজন

মিয়ানমারের বিভিন্ন পক্ষের মধ‌্যে সংলাপ প্রয়োজন
মিয়ানমারের বিভিন্ন পক্ষের মধ‌্যে সংলাপ প্রয়োজন - সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২০ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:৪৮

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের বিভিন্ন পক্ষের মধ‌্যে সংলাপ প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন।

বুধবার জাতিসংঘের স্থায়ী অফিস থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

তিনি বলেছেন, রোহিঙ্গা কমিউনিটি, মিয়ানমারের নাগরিক ও মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের মধ্যে সংলাপ হতে পারে। রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই সমাধানে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ রোহিঙ্গা কমিউনিটির সঙ্গে মিয়ানমারের আলোচনার উদ্যোগ নিতে পারে।

জাতিসংঘের প্রধান অফিসে আয়োজিত ‘আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষায় মীমাংসার ভূমিকা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, মানবিক দিক বিবেচনায় নিয়ে আমরা রোহিঙ্গা সমস্যা মীমাংসায় বিশ্বাস করি। মীমাংসার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা রয়েছে। সেই কারণেই বাংলাদেশ ১৯৯৭ সালে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। শান্তি প্রতিষ্ঠায় মীমাংসার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জাতীয় ও আঞ্চলিক পর্যায়ে অবদান রয়েছে।

তিনি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে মিয়ানমারকে সামাজিক পদ্ধতির মাধ্যমে এবং পুনর্মিলন প্রক্রিয়াতে স্বচ্ছতা এবং বস্তুনিষ্ঠতা নিশ্চিত করে সুস্পষ্ট সংজ্ঞায়িত পুনর্মিলনী কৌশল গ্রহণ করার আহ্বান জানান।

মানবাধিকার আইনের গুরুতর লঙ্ঘনের জন্য জবাবদিহিতা ও ন্যায়বিচার নিশ্চিতের লক্ষ্যে তিনি দেশটির তরুণ-তরুণীদের ভূমিকা রাখারও আহ্বান জানান।

এ সময় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলকে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো আমলে নিয়ে সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্যে রাখাইনে প্রাসঙ্গিক মানবিক কর্মী প্রেরণেরও আহ্বান জানান।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads





Loading...