আপনার স্বামী পরকীয়ায় আসক্ত যেভাবে বুঝবেন


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১১ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৩০

প্রতিদিন হাজার হাজার বিয়েবিচ্ছেদর অন্যতম কারণ পরকীয়া। মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নারী-পুরুষ উভয়েই জড়িয়ে পড়ছে এ আসক্তিতে। ফলে কীভাবে বুঝবেন যে স্বামী অথবা স্ত্রী পরকীয়া আসক্ত তা জানা জরুরি-

অবহেলা
খেয়াল রাখুন আপনার স্বামী আপনাকে অবহেলা করছে কিনা। আপনি যদি স্বামীর কাছ থেকে অবহেলার শিকার হন, তবে বুঝবেন তিনি অন্য কারো প্রতি আসক্ত। হতে পারে সেটি পরকীয়া।

ফোন বা ইন্টারনেটে আসক্ত
সঙ্গী ফোনের পেছনে কতটা সময় ব্যয় করছেন সেদিকে নজর রাখুন। একসঙ্গে বসে থেকে বা ঘুরতে গেলে যদি তিনি ফোন নিয়েই ব্যস্ত থাকেন, মেসেজ বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং করেন- তাহলে তা নিশ্চিতভাবে অন্য একটি সম্পর্কেরই ইঙ্গিত।

ফেসবুক
পরকীয়ার একটি অন্যতম কারণ হচ্ছে ফেসবুক। শুধুমাত্র ফোন নয়, ফেসবুক কিংবা অন্যান্য যোগাযোগের মাধ্যমের প্রতি আসক্তির মাত্রার ওপরও নজর দেবেন।

পরিবার
আপনার স্বামী যদি আপনার ও পরিবারের পেছনে কম ব্যয় করেন, তাহলে এটিও একটি লক্ষণ হিসেবে ধরে নেয়া যায়। খুব ভালো করে আপনার সঙ্গীর প্রতিদিনকার কাজকর্ম লক্ষ্য করুন। যদি বুঝতে পারেন যে আগের চেয়ে কম সময় পাচ্ছেন, তাহলে বোঝার চেষ্টা করুন সেই বাড়তি সময়টা তিনি কীভাবে ব্যয় করছেন।

অজুহাত
স্বামী যদি কারণে-অকারণে অজুহাত দেখায় তবে বুঝতে হবে এটি পরকীয়ার লক্ষণ। তাকে সময় দেয়ার কথা বলে দেখুন, একসঙ্গে বসে টিভি দেখার কথা বলুন, তাকে নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানান, আত্মীয়স্বজনদের ও পারিবারিক বন্ধুদের সময় দেয়ার কথা বলুন। তিনি যদি আপনাকে অজুহাত দেখিয়ে না বলেন, তাহলে জানার চেষ্টা করুন অজুহাতটি সত্যি কিনা।

নিজেকে গুটিয়ে নেয়া
স্বামী যদি পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের কাছ থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিতে শুরু করে বিনা কারণে, তাহলে ধরে নিতে পারেন তিনি পরকীয়ায় লিপ্ত।

নতুন কোন নাম
আপনার স্বামীর মুখে যদি নতুন কোনো একটি নাম ঘন ঘন শুনতে পান, তবে একেও পরকীয়ার লক্ষণ হিসেবে নিতে পারেন।

অকারণে রেগে যাওয়া
বিনা কারণে অযৌক্তিক রাগ করা, কিংবা সবসময় খিটখিট করা পরকীয়ার অন্যতম লক্ষণ। খেয়াল করে দেখুন তো, আগে যে বিষয়গুলো আপনার সঙ্গীর রাগের উদ্রেক করত না সেসব বিষয়ে কি তিনি রেগে যাচ্ছেন? কিংবা কথায় কথায় আপনাদের দাম্পত্য জীবনকে অভিশাপ হিসেবে অভিহিত করছেন?

যৌনসম্পর্ক
আপনার সঙ্গে যৌনসম্পর্কে সঙ্গী যদি উদাসীনতা দেখান তাহলে আপনি এটি পরকীয়ার নিশ্চিত লক্ষণ হিসেবে ধরতে পারেন। যিনি অন্যের সঙ্গে সময় কাটিয়ে আপনার প্রতি উদাসীন, তার মুখের অভিব্যক্তিই আপনাকে সব কথা বলে দেবে।

ফোনের ব্যাপারে অতিরিক্ত সাবধানতা
অনেকেই বাথরুমে পর্যন্ত ফোন নিয়ে যান। এটা কারও অভ্যাস হতে পারে। বা আপনার থেকে ফোন লুকানোর চেষ্টাও হতে পারে। হয়তো তার ফোনে এমন কিছু রয়েছে যা তিনি আপনাকে দেখাতে চান না। এটি হতে পারে পরকীয়ার লক্ষণ।




Loading...
ads





Loading...