চুলে যেন রঙের খেলা

সুরাইয়া নাজনীন

মানবকণ্ঠ
ছবি - সংগৃহীত।

poisha bazar

  • মানবকণ্ঠ ডেস্ক
  • ০৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:৩৫

এখন চুলের সাজে এসেছে নতুন ট্রেন্ড। অনুষঙ্গ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে বাহারি ব্যান্ড, ক্লিপ, পাঞ্চ, কাঁটা। চুলের চলতি ফ্যাশন নিয়ে কথা বলেছেন বিশেষজ্ঞরা।

খুব কম সময়ে নিজেকে নতুনভাবে উপস্থাপন করতে চাইলে চুলের সাজই প্রধান। খুব সুন্দর সেজে যদি চুল থাকে এলোমেলো তাহলে সেদিনের সাজই বৃথা। তাই মুখের সঙ্গে মানিয়ে চুল বেঁধে যে কোন পার্টিতে উপস্থিত হওয়া যায় অনায়াসে। তবে চুলের অনুষঙ্গ বড় বিষয়। কী ধরনের অনুষঙ্গ ব্যবহার করবেন সে বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন রূপবিশেষজ্ঞরা। লিখেছেন- সুরাইয়া নাজনীন

সাজের অন্যতম অধ্যায় হলো চুলের স্টাইল। চুলের স্টাইলের ওপর নির্ভর করে মানুষের ব্যক্তিত্ব। চুল যদি ঠিকঠাকমতো সাজানো যায়, তাহলে নিজেকে সবার চেয়ে আলাদাভাবে উপস্থাপন করা যায়। এখন চুলের সাজে এসেছে নতুন ট্রেন্ড। অনুষঙ্গ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে বাহারি ব্যান্ড, ক্লিপ, পাঞ্চ, কাঁটা।

চুলের চলতি ফ্যাশন নিয়ে রেডের কর্ণধার আফরোজা পারভীন বলেন, খুব কম সময়ে নিজেকে নতুনভাবে উপস্থাপন করতে চাইলে চুলের সাজই প্রধান। চট জলদি চুলকে পরিপাটি করে তুলতে ব্যবহার করা হচ্ছে ভিন্ন আঙ্গিকের ব্যান্ড, ক্লিপ, কাঁটা ইত্যাদি। ছোট-বড় সবাই পরছে চুলের এসব উপকরণ। একটা সময় ছিল যখন চুল বাঁধতে ফুল ছাড়া আর কোনো কিছুই ভাবা হতো না। এখনো ফুলের কদর আছে কিন্তু ব্যবহারের ধারার কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে।

মেয়েরা এখন চুলকে স্ট্রেট শেপ করে খুলে রাখতেই বেশি পছন্দ করে, এক্ষেত্রে দেখা যায় সামনে একটি কালারফুল ব্যান্ড দিলেই সৌন্দর্য ফুটে উঠছে বহুগুণে। আর বাঙালি মেয়েদের খোঁপার আবেদন তো বেশ পুরনো। তবে খোঁপাকে আরো নান্দনিক করে তুলতে ব্যবহার করতে পারেন রংবেরঙের খোঁপার কাঁটা। কালো চুলে লাল, সাদা, নীল, বেগুনি রঙের স্টোনের কাঁটা চেহারায় এনে দেবে গর্জিয়াস লুক।
সময়ের অভাবে মানুষ ইচ্ছা থাকলেও কাঁচা ফুল অনেক সময় ব্যবহার করতে পারে না তাই বলে কি আধুনিকতার যুগে মানুষ থেমে থাকবে?

কখনোই না, এখন ফুলের আদলে নানা রকম রাবার ব্যান্ড, ক্লিপ, তৈরি ফুলেল খোঁপা অনায়াসে আপনি পরতে পারেন দিনের বা রাতের পার্টিতে। তাছাড়া সাদা, অফহোয়াইট, সিলভার এসব রঙের ছোট ছোট খোঁপার কাঁটা কিংবা পাঞ্চ ক্লিপ পরলে চুলকে আরো মোহনীয় দেখাবে। চুলের এসব উপকরন চেহারায় বয়সের ছাপ কমায় অর্থাৎ বেবি লুক ফুটিয়ে তোলে খুব সহজে বলছিলেন আফরোজা পারভীন।

হারমনি স্পা ও ক্লিওপেট্রার কর্ণধার রাহিমা সুলতানা বলেন, চুলে যে স্টাইলই করুন না কেন, খেয়াল রাখতে হবে নিজেকে যেন চুলের স্টাইলের সঙ্গে মানানসই লাগে। তাই নিজের চেহারা ও ব্যক্তিত্বে নতুন লুক দিতে বিভিন্ন ধরনের হেয়ার কাট ট্রাই করে দেখতে পারেন। যারা অফিসে কাজ করেন তারা লেয়ার, স্টেপ, স্কয়ার লেয়ার করে কাটতে পারেন। যাতে প্রয়োজনমতো চুলটা বেঁধেও রাখা যায়। অনেকের বেশ চওড়া কপাল থাকে। চওড়া কপাল ঢাকতে সামনের চুল ছোট করে কাটতে পারেন। লম্বা চুলে পেছনটা ইউ বা আপনার পছন্দমতো কোনো শেপ দিতে পারেন। এসব হেয়ার কাটের সঙ্গে চুলের বিভিন্ন উপকরণ ব্যবহার করতে পারেন নিজের পছন্দানুযায়ী।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads




Loading...