গলা কেটে হত্যার ১১ বছর পর ১০ জনের যাবজ্জীবন


poisha bazar

  • আলমগীর হান্নান, খুলনা ব্যুরো
  • ০৬ আগস্ট ২০১৯, ২০:৪৪

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার পদ্মবিলা গ্রামের ব্যবসায়ী আলতু মোল্লা হত্যা মামলায় ১০ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) খুলনার জননিরাপত্তা বিঘœকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক বিশেষ দায়রা জজ মোঃ সাইফুজ্জামান হিরো এই রায় ঘোষণা করেন। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় দুই আসামিকে খালাস প্রদান করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, দিঘলিয়া উপজেলার পদ্মবিলা গ্রামের আবুল কাশেম, কুববাত মুন্সী, ফারুক মোল্লা, মনজুরুল শিকদার, মোঃ ইরান, আবু তালেব, হুমায়ুন খাঁ, কবির মোল্লা এবং সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার আবদুল গফফার ও খলিলুর রহমান। খালাশপ্রাপ্ত দুই জন হলেন হাবিব ও মিঠুন।

জননিরাপত্তা বিঘœকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি আরিফ মাহমুদ লিটন জানান, ২০০৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর দিঘলিয়ার পদ্মবিলা মাঠে গলাকাটা অবস্থায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আলতু মোল্লার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এর এক সপ্তাহ আগে থেকে নিখোঁজ ছিলেন তিনি। এ ঘটনায় ১৮ ডিসেম্বর নিহতের ভাইয়ের ছেলে আলমগীর হোসেন মোল্লা বাদি হয়ে অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে দিঘলিয়া থানায় মামলা করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০০৮ সালের ২৬ মে ১২ জনকে অভিযুক্ত করেন আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দিঘলিয়া থানার এস আই এস আই ফজলুল কবীর।

তিনি জানান, প্রায় ১১ বছর মামলা চলার পর মঙ্গলবার আদালত ১০ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা ধার্য করেন। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় ২ জনকে খালাশ দেওয়া হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে/আহা




Loading...
ads





Loading...