সালমান রুশদির ওপর হামলাকারী পুলিশ হেফাজতে


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৩:৩২

ব্রিটিশ উপন্যাসিক সালমান রুশদির ওপর হামলাকারী যুবকের পরিচয় প্রকাশ করা হয়েছে। তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

এনবিসি নিউইয়র্কের তথ্যমতে, পুলিশের হাতে আটক হামলাকারী যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির বাসিন্দা হাদি মাতার (২৪)। হামলাকারী ইরানি শাসকগোষ্ঠীর সমর্থক ও শিয়া অনুসারী বলে জানিয়েছেন পুলিশ। যদিও হাদি মাতারের সঙ্গে ইরানের বিপ্লবী গার্ড (আইআরজিসি) বাহিনীর কোনো সংযোগ পাওয়া যায়নি। তবে তার ড্রাইভিং লাইসেন্স ভুয়া ছিল। তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে এখনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

তবে হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। হাদি মাতারের আগের রেকর্ড জানতে এবং হামলার উদ্দেশ্য বের করতে চেষ্টা করছে পুলিশ।

এর আগে শুক্রবার (১২ আগস্ট) যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানের মঞ্চে সালমান রুশদির ওপর হামলা চালানো হয়। এক ব্যক্তি দৌড়ে মঞ্চে উঠে ছুরি নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। তাৎক্ষণিক তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। বর্তমানে সালমান রুশদিকে ভেন্টিলেটরে নেওয়া হয়েছে, তিনি কথা বলতে পারছেন না এবং তিনি হয়তো একটি চোখ হারাবেন।

উল্লেখ্য, সালমান রুশদি ১৯৮৮ সালে ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ বইটি প্রকাশের পর থেকেই হত্যার হুমকি পেয়ে আসছেন। অনেক মুসলিম এই বইটিতে তাদের ধর্মের অবমাননা করা হয়েছে বলে মনে করেন।

বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর প্রায় ৯ বছর সালমান রুশদিকে আত্মগোপনে থাকতে হয়েছিল। এরপর বইটি অনেক দেশে নিষিদ্ধ করা হয়। শুধু তাই নয়, বইটি প্রকাশিত হওয়ার এক বছর পর ইরানের তৎকালীন সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি সালমান রুশদিকে হত্যার ডাক দেন এবং ৩০ লাখ ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেন।

বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর বিভিন্ন দেশে সহিংসতায় ছড়িয়ে পড়ে, তাতে অন্তত ৫৯ জন মানুষ নিহত হয়। -সূত্র : এনবিসি নিউইয়র্ক, নিউইয়র্ক টাইমস

মানবকণ্ঠ/এআই


poisha bazar