তালেবান সরকারের সাথে কাজ করার আগ্রহ রাশিয়ার


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২২

আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের সাথে কাজ করা আগ্রহ প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, তালেবান সরকারের সঙ্গে রাশিয়ার কাজ করা প্রয়োজন।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে চীন ও রাশিয়া নেতৃত্বাধীন নিরাপত্তা (সিকিউরিটি) ব্লক সংক্রান্ত এক বৈঠকে রুশ প্রেসিডেন্ট এই মন্তব্য করেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন, আফগানিস্তানের বিষয়ে জাতিসংঘের সম্মেলনকে রাশিয়া সমর্থন জানিয়েছে। আফগানিস্তানের অর্থ আটকানোর বিষয়টি বিশ্ব নেতাদের বিবেচনা করা উচিত।

গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে সশস্ত্র তালেবান। এর তিন সপ্তাহ পর তারা অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে। পশ্চিমা বিশ্ব তালেবানকে স্বীকৃতি দেবে না বললেও পাকিস্তান ছাড়াও চীন ও রাশিয়া তালেবানের বিষয়ে ইতিবাচক মনোভব দেখাচ্ছে।

তালেবান সরকার গঠনের পর বিশ্বের একমাত্র দেশ কেবল চীন খোলাখুলি অভিনন্দন জানিয়েছে। গত সপ্তাহে চীন আফগানিস্তানের জন্য তিন কোটি মার্কিন ডলারের জরুরি খাদ্য এবং ওষুধ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। আফগানিস্তানে বিনিয়োগ নিয়ে দোহায় তালেবান প্রতিনিধিদের সঙ্গে গত সপ্তাহে চীনাদের কথা হয়েছে।

এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের ৬ প্রতিবেশী দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক ভার্চুয়াল বৈঠকে যুক্ত হন। দেশগুলো হলো- ইরান, চীন, তাজিকিস্তান, তুর্কিমিনিস্তান, উজবেকিস্তান এবং পাকিস্তান।এই বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, ইরান আফগানিস্তানের ঘোষিত সরকারের ওপর দৃষ্টি রাখছে। আমরা চাই তালেবান সকল নৃগোষ্ঠীর মানুষের সমন্বয়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করুক।

তালেবান শাসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি না দিয়েই তাদের সঙ্গে ছয়টি দেশ ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখছে। সেগুলো হলো পাকিস্তান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন ও ইরান। আফগানিস্তানে এই রাষ্ট্রগুলোর বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং এমনকি পরস্পরবিরোধী স্বার্থ রয়েছে।

রাশিয়া ও ইরান মনে করে, তারা মধ্যপ্রাচ্যে তাদের কৌশলগত লক্ষ্য যেভাবে অর্জন করেছে, একইভাবে মধ্য এশিয়াতেও যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যকে পরাজিত করতে পারবে।

তবে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতির ব্যাপারে অনেক বিশেষজ্ঞ বলছেন,তালেবান সরকারের প্রতি পাকিস্তান, চীন বা কাতারের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি অনেকটাই অপ্রাসঙ্গিক, কারণ সম্পর্ক শুরু হয়ে গেছে।

মানবকণ্ঠ/এমএ


poisha bazar

ads
ads