অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিনে স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৯:২৩,  আপডেট: ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৩২

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নিয়ে ব্রাজিলে এক স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু হয়েছে। ২৮ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি রিও ডি জেনেরিওতে থাকতেন। তবে মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে গোপনীয়তা রক্ষা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ অ্যানভিসাকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বলে জানানো হয়েছে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ওই ব্যক্তির কী ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়েছিলো সে বিষয় এখনও জানা যায়নি।

রয়টার্স বলছে, স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু হলেও সম্ভাব্য টিকার পরীক্ষা চলবে। ট্রায়ালে যুক্ত ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত গোপনীয়তার কারণে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। ফেডারেল ইউনিভার্সিটি অব সাও পাওলোর পক্ষ থেকে পৃথকভাবে জানানো হয়েছে, মৃত ব্যক্তি ব্রাজিলিয়ান। তবে তিনি ব্রাজিলের কোনো অংশের বাসিন্দা, সে বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে খোলসা করে কিছু বলা হয়নি। যে বিশ্ববিদ্যালয় ব্রাজিলে অ্যাস্ট্রোজেনেকা ও অক্সফোর্ডের 'ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট'-এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালানোর ক্ষেত্রে সাহায্য করছে।

সূত্র উদ্ধৃত করে আরও রয়টার্স জানিয়েছে, যাদের ওপর এখন করোনা টিকার পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হচ্ছে, মৃত ব্যক্তি সেই গোষ্ঠীর অংশ হলে তৎক্ষণাৎ ট্রায়াল স্থগিত রাখা হতো। বিষয়টির সঙ্গে অবহিত এক সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, মৃত ব্যক্তির শরীরে সম্ভাব্য করোনা টিকা প্রয়োগ করা হয়নি। তবে সেই তথ্য প্রকাশ্যে না আসা নিজের নাম ও পরিচয় গোপন রাখতে চেয়েছেন ওই সূত্র।

মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে কোনও মন্তব্য করা হয়নি বলে জানিয়েছে ব্লুমবার্গ। অন্যদিকে অ্যাস্ট্রোজেনেকার জানিয়েছে, গোপনীয়তা এবং ক্লিনিকাল ট্রায়ালের নিয়মের জন্য কোনো নির্দিষ্ট বিষয় নিয়ে সংস্থার পক্ষে কোনো মন্তব্য করা হবে না।

এর আগে একবার অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন নিয়ে এক স্বেচ্ছাসেবকের স্নায়ু সমস্যা দেখা দেয়। তখন সাময়িক স্থগিত করা হয় ভ্যাকসিনের ট্রায়াল। তবে এবার মৃত্যুর ঘটনায় টিকা ট্রায়াল বন্ধ করা হচ্ছে না।

এদিকে বিশ্বের প্রায় দুই শতাধিক প্রতিষ্ঠান কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন আবিষ্কারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। চীন, রাশিয়ার টিকা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

মানবকণ্ঠ/এনএস






ads