রূপান্তরের মাধ্যমে দ্রুত করোনা ছড়াচ্ছে: ফাউসি

- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৩ জুলাই ২০২০, ২১:৫৮

হোয়াইট হাউসের স্বাস্থ্য পরামর্শক অ্যান্টনি ফাউসি গতকাল বৃহস্পতিবার বলেছেন, করোনাভাইরাসের এমনভাবে রূপান্তর ঘটেছে (মিউটেশন), যাতে এটি আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, সম্ভাব্য মিউটেশন ও এর প্রভাবের বিষয়টি নিশ্চিত করতে গবেষণা চলছে।

ভাইরাস প্রাকৃতিকভাবে পরিবর্তিত হয় এবং বিজ্ঞানীরা এর আগে বলেছিলেন যে, তাঁরা করোনার ছোটখাটো মিউটেশন পর্যবেক্ষণ করেছেন, যা থেকে রোগের বিস্তার বা রোগ সৃষ্টির ক্ষমতা বেশি প্রভাবিত হয় না।

ফাউসি যে সম্ভাব্য মিউটেশনের কথা বলছেন, সে সম্পর্কে প্রথম জানান লস অ্যালামস ন্যাশনাল ল্যাবরেটরির গবেষকেরা। গতকাল বৃহস্পতিবার তাঁদের একটি নিবন্ধ 'সেল' সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়। গত মাসেই ফ্লোরিডার স্ক্রিপস রিসার্চ সেন্টারের ভাইরোলজিস্টরা সম্ভাব্য মিউটেশনের বিষয়ে সতর্ক করে বলেছিলেন, এটি ভাইরাল ট্রান্সমিশন বাড়িয়ে দেয়। তবে মিউটেশন কোন পর্যায়ে ঘটে সে বিষয়টি পরিষ্কার নয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গবেষকেরা বলেন, সব ভাইরাসের বিবর্তন ঘটে বা তাদের জীবনকালে মিউটেশন ঘটে। করোনার মতো আরএনএ ভাইরাস অন্য ভাইরাসের চেয়ে দ্রুত মিউটেশন ঘটায়।কারণ, মানুষের ডিএনএর মতো আরএনএন ভাইরাসের কোনো প্রাকৃতিকভাবে ভুল পরীক্ষা করার পদ্ধতি নেই। এতে ভাইরাস নিজেকে ঠিক করতে পারে না। যেকোনো মিউটেশন তাকে যেকোনো অর্থপূর্ণ আচরণ পরিবর্তনের দিকে নিতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থা সম্ভাব্য মিউটেশন খুঁজে দেখতে জেনেটিক সিকোয়েন্সের ডেটাবেস তৈরি করেছে।

এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন বলেছিলেন, ভাইরাসের ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক মিউটেশন আশা করা যায়। তবে ভাইরাসের বিশেষ কিছু দিক আছে, যা অনেক জটিল। যেমন স্পাইক প্রোটিন—যা থেকে এর নামকরণ হয়েছে। যদি ভাইরাসের বিশেষ মিউটেশন ঘটে থাকে, তবে ভ্যাকসিন উৎপাদনের ক্ষেত্রে তার প্রভাব পড়বে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...