এশিয়ার করোনা ইউরোপ থেকে আলাদা, বলছে গবেষকরা

এশিয়ার করোনা ইউরোপ থেকে আলাদা, বলছে গবেষকরা
এশিয়ার করোনা ইউরোপ থেকে আলাদা, বলছে গবেষকরা - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১৭:০৫

বিশ্বে মহামারী আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। প্রতিদিন মৃতের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। রোগটি কিভাবে আসলো এবং প্রতিষেধক নিয়েও চলছে নানা গবেষণা। এরই মধ্যে ভিয়েতনামের গবেষকরা বলছে, এশিয়ার করোনাভাইরাস ইউরোপ থেকে আলাদা।

ভিয়েতনামের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হাইজিন অ্যান্ড এপিডেমিওলজি জানিয়েছে, করোনাভাইরাস দুটি পৃথক গোষ্ঠীতে বিভক্ত। এশিয়ার করোনাভাইরাস ইউরোপ থেকে আলাদা।

প্রতিষ্ঠানটির উপ-পরিচালক প্রফেসর লি থাই কুয়ান মাই বলেন, ভিয়েতনামে প্রথম করোনা রোগীর খোঁজ পাওয়ার পর থেকেই বিজ্ঞানীরা কাজ করে চলেছেন। এটি নিয়ে গবেষণা করছেন। প্রথমে যে রোগীদের খোঁজ পাওয়া যায়; তাদের অধিকাংশই ছিল এশিয়ার দেশ থেকে আসা। আর বর্তমানে যে রোগীদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে; তাদের প্রায় সবাই ইউরোপের দেশ থেকে আসা। সব রোগীর দেহের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করে দেখা গেছে, এশিয়া থেকে আসা এমন করোনা রোগীদের করোনাভাইরাস ইউরোপ থেকে আসা রোগীদের থেকে আলাদা।

ইনস্টিটিউটের আবিষ্কারটি বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে পড়ার সাধারণ ধারা অনুসরণ করেছে বলে জানিয়েছেন লি থাই কুয়ান।

তিনি বলেন, এখনো পর্যন্ত গবেষণায় দেখা গেছে, আলাদা দু’টি করোনাভাইরাসের মধ্যে একটি সংক্রামক বা শক্তিশালী বেশি। আর পরিবেশ, ভৌগোলিক অবস্থান ও সংক্রমিত ব্যক্তির ওপরও নির্ভর করে ভাইরাসের শক্তিশালী দিকটি। তিনি আরো বলেন, ভাইরাসের এমন পরিবর্তনগুলো শনাক্ত করার ফলে ভ্যাকসিনের উৎপাদন সহজ হবে।

ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে ভাইরাসটির নতুন স্ট্রেন পৃথক করেছিলেন লি থাই কুয়ান ও তার সহযোগীরা। করোনার নতুন স্ট্রেন ধরতে পারা বিশ্বের চারটি দেশের ভিয়েতনাম উল্লেখযোগ্য।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...