করোনা ঠেকাতে ভারতে ৯ মিনিটের দীপাবলি!

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী - ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৪ এপ্রিল ২০২০, ১০:০৫,  আপডেট: ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১১:২৪

করোনা ভাইরাসের মহামারি যে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় বৈশ্বিক সংকট, তাতে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই। এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে আলো ফিরিয়ে আনতে এক অভিনব উপায়ের সন্ধান দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মোদীর নির্দেশ, আগামী রোববার (৫ এপ্রিল) স্থানীয় সময় রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্য প্রত্যেক বাড়ির সব আলো নিভিয়ে দিয়ে বারান্দায় বা দরজায় দাঁড়িয়ে প্রদীপ, মোমবাতি, টর্চ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট জ্বালাতে হবে! যদিও তার বক্তৃতার কোথাও এই সঙ্কটকালে দেশটির অর্থনীতি কিংবা দরিদ্র মানুষের জন্য করণীয় সম্পর্কে তিনি একটি বাক্যও উচ্চারণ করেননি বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর যুক্তি, করোনা-সঙ্কটে যে আঁধার তৈরি হচ্ছে তা শেষ করতে আলোর দিকে যেতে হবে, ছড়িয়ে দিতে হবে আলোর তেজ। জনতাই জনার্দন, অর্থাৎ ঈশ্বর। ১৩০ কোটি দেশবাসীর সেই “মহাশক্তি”কে জাগ্রত করতে হবে।

এর আগে জনতা-কার্ফুর দিনে বিকেল ৫টায় ডাক্তার-নার্সদের জন্য ৫ মিনিট ধরে তালি-থালি বাজাতে বলেছিলেন তিনি।

মোদী বলেন, “দেশের কোটি কোটি লোক ঘরে বসে। কারও মনে হতেই পারে একা কীকরে লড়াই করবো। কিন্তু প্রত্যেকের সঙ্গে ১৩০ কোটি জনতার ঐক্যবদ্ধ শক্তি রয়েছে। মাঝে মাঝে এই জনতারূপী শক্তির দর্শন জরুরি। তাতে মনোবল বাড়ে।”

এদিকে, ভারতে চলমান লকডাউনে রুটিরুজি হারানো লক্ষ লক্ষ শ্রমিক কয়েকশো মাইল হেঁটে গ্রামে ফিরছেন। অর্থনীতির হাল নিয়ে গভীর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। দেশটির বিরোধীদের মতে, প্রধানমন্ত্রী মোদী সে কারণে সুকৌশলে নজর ঘোরানোর চেষ্টা করছেন। একইসঙ্গে তার ডাকে দেশের মানুষ তালি দিচ্ছে বা বাতি জ্বালাচ্ছে, তা দেখিয়ে নিজের ভাবমূর্তিও বাড়ানোর চেষ্টা করছেন।




Loading...
ads






Loading...