করোনায় রক্ষা করছে শৈশবের টিকা

করোনায় রক্ষা করছে শৈশবের টিকা
- সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০১ এপ্রিল ২০২০, ১১:৫২

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের কোন ঔষধ আবিস্কার করতে পারেননি বিজ্ঞানীরা। আক্রান্তরা সুস্থ হচ্ছেন নিজের শরীরে থাকা সুরক্ষার বলেই।

এছাড়া চিকিৎসা বিজ্ঞানীরাও চেষ্টা করে চলেছেন এই মারণ ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কারের। তবে এর বাইরেও নানা প্রতিষেধকে এ রোগে সফলতা মিলছে বলেও জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

এবার তারা জানালেন, যক্ষ্মার প্রতিষেধকে সুফল মিলতে পারে করোনা চিকিৎসার। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি কলেজ অফ অস্টিওপ্যাথিক মেডিসিনের এক গবেষণায় এমনটি জানানো হয়েছে।

বিভিন্ন দেশে করোনার প্রভাবকে পরীক্ষা করে গবেষকরা দেখতে পেয়েছেন বিসিজি বা ব্যাসিলাস ক্যালমেট-গুউরিন যা যক্ষা রোগের (টিবি) ভ্যাকসিন হিসাবে মূলত ব্যবহৃত হয় তা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একটি সম্ভাব্য নতুন হাতিয়ার হতে পারে।

এ বিষয়ে নিউ ইয়র্ক ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি কলেজ অফ অস্টিওপ্যাথিক মেডিসিনের পক্ষ থেকে বলা হয়, পৃথিবীর যে সব দেশে বিসিজি টিকাদান কর্মসূচি নেই যেমন ইতালি, নেদারল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তবে দীর্ঘস্থায়ী টিকাদান কর্মসূচি যে সব দেশে চালু আছে ওইসব দেশের মানুষের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা কম।

গবেষণায় দাবি করা হয়, বিসিজি টিকা আসার পর থেকে বিশ্বে মৃত্যুর হার উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে। উদাহরণ স্বরূপ বলা হয়, মৃত্যুর হার বেশি হওয়ায় ১৯৮৪ সালে বিসিজি কার্যক্রম শুরু করে ইরান। দেশটিতে বিসিজি টিকা দেয়া মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি তেমন একটা পাওয়া যায়নি।

মানবকণ্ঠ/এআইএস

 




Loading...
ads






Loading...