'ধর্ষকের' হাত থেকে 'বাঁচিয়ে' যুবতীকে গণধর্ষণ


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২০ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৪২

ভারতের উত্তরপ্রদেশের নয়ডার এক তরুণীকে ‘ধর্ষক’-এর হাত থেকে বাঁচিয়ে, ধর্ষণ করেছে পাঁচ জন যুবক। জানা গেছে, চাকরির টোপ দিয়ে ডেকে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ওই যুবক। সেসময় দেবদূতের মতোই সেখানে হাজির হয় দু'জন। তরুণীর পরিচিত ওই যুবককে বেধড়ক পিটিয়ে তারা তাড়ায়। তরুণী ভাবে এ যাত্রায় বড় বিপদ এড়ানো গেল। পরক্ষণেই ভুল ভাঙে। ওই ‘ত্রাতা’রাই ফোন করে ডেকে আনে আরও তিন জনকে। এরপর ওই ঘরের মধ্যেই পাঁচ বন্ধু মিলে পালা করে ধর্ষণ করে ওই তরুণীকে।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের নয়ডার বাহলোলপুর পুলিশ ফাঁড়ির অন্তর্গত ইলেকট্রনিক সিটি মেট্রো স্টেশনের কাছেই, সেক্টর ৬৩-তে।

থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগ থেকে জানা যায়, রবি নামে বছর একুশের এক যুবক ওই তরুণীকে চাকরির অফার দেয়। ফোন করে মেয়েটিকে নির্দিষ্ট ঠিকানায় ডাকলে, সেখানে পৌঁছে যান তরুণী। রবি সেখানে জোর করে ওই তরুণীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করে। জাপটে ধরে কিস করতে গেলে, ওই ঘরে আবির্ভূত হয় দুই যুবক। মেয়েটির সামনেই তারা মারধর করে রবিকে। রবি সেখান থেকে চলে গেল, তরুণী ঘটনার প্রাথমিক ধাক্ক সামলে, স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টা করে। ঠিক সেই মুহূর্তেই মেয়েটি দেখে আরও তিন জন চলে এসেছে ওই ঘরে। কথা শুনে বুঝতে পারেন, এরা একে অপরের বন্ধু। এ-ও বুঝতে বাকি থাকে না, ‘ত্রাতা’র বেশে আসা যুবকেরাও ধর্ষক। গোটাটাই সাজানো মনে হয় তাঁর কাছে। পালা করে পাঁচ জন মিলে ধর্ষণ করে ওই তরুণীকে। কোনও ভাবেই নিজেকে রক্ষা করার মতো প্রতিরোধ তাঁর পক্ষে গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি।

ধর্ষিতার মা জানান, জ্বরের কারণে কিছুদিন কর্মক্ষেত্রে যেতে না-পারায় সম্প্রতি চাকরি যায় মেয়ের। তাই চাকরি খুঁজতে মরিয়া ছিল মেয়ে। সেই সুযোগই নেয় রবি। অভিযুক্তদের মধ্যে রবিসহ চার জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। দু'জন এখনও ফেরারি। তাদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।

সূত্র: এই সময়

মানবকণ্ঠ/এফএস




Loading...
ads





Loading...