বাণিজ্য মেলা এলাকায় ফ্লাট ভাড়া আট গুণ বেড়েছে!


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:১৩,  আপডেট: ২৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:১৭

রাজধানীর পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) নতুন বছরের প্রথম দিন (১ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। মেলা ঘিরে এরই মধ্যে পূর্বাচল ও এর আশেপাশের এলাকার ফ্ল্যাট বাণিজ্য জমে উঠেছে।

দেশি-বিদেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক ও স্টাফরা মেলা চলাকালে থাকার জন্য ওই এলাকায় পাঁচ হাজার টাকা ফ্ল্যাট বাসা এখন ভাড়া নিচ্ছেন ৩৫-৪০ হাজার টাকায়। সুযোগ বুঝে ৭-৮ গুণ বাড়িয়ে যতটা সম্ভব চড়া ভাড়া হাঁকাচ্ছেন ফ্ল্যাট মালিকরা।

সরেজমিনে বাণিজ্য মেলা এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, আগামী ১ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া মেলা ঘিরে স্টল নির্মাণে ব্যস্ত সময় পার করছেন ব্যবসায়ীরা। তবে শহরের অদূরে হওয়ায় কাজের ফাঁকে ফাঁকে অনেকেই মেলা এলাকায় বাসা ভাড়া নেওয়ার চেষ্টা করছেন। বিশেষত মেলা কেন্দ্রিক বিদেশি ব্যবসায়ীদের বাসা ভাড়া নিতে বেশি দৌড়ঝাঁপ করতে দেখা যাচ্ছে।

দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিরা বলছেন, শহর থেকে কিছুটা দূরে হওয়ায় এখানে নিয়মিত যাতায়াত করা কঠিন। তাই মেলা চলাকালে নির্বিঘ্নে কাজ করতে নিজেদের ও স্টাফদের জন্য বাণিজ্য মেলার আশপাশ এলাকায় বাসা খুঁজছেন অনেকে। এ সুযোগে স্থানীয় ফ্ল্যাট মালিকরাও হাঁকাচ্ছেন কয়েকগুণ বেশি ভাড়া। পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকার ফ্ল্যাটের ভাড়া নেওয়া হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা, কোথাও তার চেয়েও বেশি।

তুরস্কের অন্যতম প্রধান শহর ইস্তাম্বুল থেকে আসা ব্যবসায়ী জামায়া জমু বাণিজ্য মেলায় একটি স্টল নিয়েছেন। তিনি জানান, এবারই প্রথম তিনি এই মেলায় স্টল নিয়েছেন। স্টলে লাইট, গ্লাস, সিরামিক, মেলামাইন পণ্য থাকবে। তিনি মেলার আশেপাশেই বাসা নিয়ে থাকছেন।

এই তুর্কি ব্যবসায়ীর মতো আরও অনেক দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের মালিক ও স্টাফরা একইভাবে ভাড়া বাসায় থাকছেন। জরুরি ভিত্তিতে বাসা ভাড়ার জন্য তাদের এমন চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে মেলা এলাকায় বাসা ভাড়া বেড়েছে বহুগুণ।

স্থানীয় ফার্মেসি দোকানি হাবিবুর রহমান শিপন পেশাগত কাজের পাশাপাশি ফ্ল্যাট ভাড়া দেওয়ার কাজ করেন। মেলা উপলক্ষে তাদের ফ্ল্যাট ব্যবসা এখন অনেকটা জমজমাট।

তিনি বলেন, পূর্বাচলে প্রথমবারের মতো বাণিজ্য মেলা হচ্ছে, আশেপাশে অনেক স্থানীয় ফ্ল্যাট মালিক সেভাবে নিজেদের বাসা প্রস্তুত করেননি। তবে বড় বিল্ডিংগুলোর মালিকরা মেলায় আসা ব্যবসায়ীদের কাছে বাসা ভাড়া দিচ্ছেন। এখন মোটামুটি ভালো ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে। মেলা প্যাকেজে তিন রুমের টাইলস করা ফ্ল্যাট ৪০-৪৫ হাজার টাকা ভাড়া পড়ে। নরমালি এসব ফ্ল্যাটের ভাড়া থাকে পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা। আর যেসব বাসায় গ্যাস নেই, সেখানে ভাড়াটিয়াদের পকেটের টাকায় এলপিজি গ্যাস কিনে ব্যবহার করতে হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল্লাহ মিয়া বলেন, ‘মেলায় জাগো দোকান আছে হেরা তো এইহানেই থাকতে চাইতাছে, শহর তো অনেক দূর। মেলার লাইগ্যা বড় বড় ফ্ল্যাটে ভিড়, নরমাল বাসাও আছে। অনেকে যোগাযোগ করতাছে, দেখতাছে। অনেকে ভাড়াও নিতাছে। আমার দুইটা ফ্ল্যাট আছে, একটা ভাড়া দিছিলাম আরেকটা খালি আছে। তিন রুমের ফ্ল্যাট ২৫ হাজার টাকা নিমু। কন্ট্রাক্ট এমন হইতাছে, কেউ এক তারিখ থেকে ৩১ তারিখ, আবার কেউ মেলা টু মেলা নিতাছে। মেলার উদ্বোধন হলে উঠবো, শেষ হওয়ার দু-তিনদিনের মধ্যে চইল্যা যাইবো।’

তিনি জানান, মেলা শুরুর আগ মুহূর্তেও অনেক ব্যবসায়ী বাসা ভাড়া নিচ্ছেন। এলাকায় বিভিন্ন প্রজেক্টের লোক আছে, বিভিন্ন সাইটের কাজ চলছে। সেসব প্রজেক্টের শ্রমিক ও প্রকৌশলীরা এখানেই থাকেন। মেলার প্রজেক্টেও সাত-আটশ লোক কাজ করছে। সেজন্য অনেকে একটু বাড়তি ভাড়া দিয়ে হলেও মেলাকেন্দ্রিক ফ্ল্যাট ভাড়া নিচ্ছে।


poisha bazar


ads