বাজারে এলো অপো রেনো এবং রেনো ১০এক্স জুম


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৮ জুন ২০১৯, ১৩:১৬,  আপডেট: ১৮ জুন ২০১৯, ১৩:২২

রেনো এক্সপেরিয়েন্স অনুষ্ঠানে উন্মোচন করা হলো অপো রেনো সিরিজের প্রথম দুটি স্মার্টফোন অপো রেনো এবং অপো রেনো ১০এক্স জুম। সোমবার ঢাকার ক্রিকেটার্স কিচেন রেস্টুরেন্টে অপো রেনো এক্সপেরিয়েন্স অনুষ্ঠানের আয়োজন করে গ্লোবাল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- অপো বাংলাদেশ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মিঃ ডেমন ইয়াং, সর্দার শওকত আলী ডেপুটি ডিরেক্টর এন্ড হেড অফ ডিভাইস গ্রামীণফোন লিমিটেড, অপো বাংলাদেশ এর ব্র্যান্ড হেড আইয়োনো এবং পিআর ম্যানেজার ইফতেখার সানি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিরা বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অপো’র সর্বশেষ ইনোভেশনগুলোর সমন্বয়ে তৈরি রেনো এবং রেনো ১০এক্স জুম হাতে নিয়ে অভিজ্ঞতা করবার সুযোগ পান।

এই অনুষ্ঠানেই বাংলাদেশের বাজারে বিক্রির জন্যে আনুষ্ঠানিক ভাবে উন্মোচন করা হয় অপো রেনো এবং অপো রেনো ১০এক্স জুম এর। অপো রেনো এবং রেনো ১০এক্স জুম ফোন দুটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে যথাক্রমে ৪৯,৯৯০ এবং ৭৯,৯৯০ টাকায়।

অনুষ্ঠানে অপো বাংলাদেশ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মিঃ ডেমন ইয়াং বলেন, যাত্রার শুরু থেকেই ব্যবহারকারীদের চাহিদা পুরোপুরি ভাবে মেটাতে সক্ষম এমন ফোন উৎপাদনে গুরুত্ব দিয়ে আসছে অপো। এরই ধারাবাহিকতায় সম্পতি স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি এবং অধিক গ্রাফিকস সমৃদ্ধ গেমস ও মননশীল বিভিন্ন ভারি কাজের উপযোগী স্মার্টফোন তৈরিতে যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছে অপো। অপো রেনো এবং অপো রেনো ১০এক্স জুম ফোন দু’টি অপো’র সকল ইনোভেশনের সমন্বয়ে তৈরি। অপো রেনো এবং রেনো ১০এক্স জুম ব্যবহার করা মাত্রই যে কেউ ফোন দুটির ডিজাইন ও কার্যক্ষমতার প্রতি মুগ্ধ হতে বাধ্য।

অপো রেনোতে থাকছে ২৩৪০*১০৮০ পিক্সেল সমৃদ্ধ ৬.৪০-ইঞ্চি ফুলএইচডি প্লাস ডিসপ্লে। আর রেনো ১০এক্স জুমে থাকছে ২৩৪০*১০৮০ পিক্সেলের ৬.৬-ইঞ্চি ফুলএইচডি প্লাস ডিসপ্লে। দু’টো ফোনেই থাকছে অ্যামোলেড ডিসপ্লে। আর দু’টো ফোনেই শার্ক-ফিন সদৃশ রাইজিং ক্যামেরা প্ল্যাটফোর্ম থাকায় এর এর স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও ৯৩.১%।


ক্যামেরার জন্যে অপো রেনোতে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা সেট-আপ যার প্রাথমিক ক্যামেরাটি এফ/১.৭ অ্যাপারচার যুক্ত সনি আইএমএক্স ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর। অপো রেনো ১০এক্স জুম স্মার্টফোনটিতে ট্রিপল ক্যামেরা সেট-আপ এর মাঝে মূল ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে এফ/১.৭ অ্যাপারচার যুক্ত ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর। এছাড়াও এতে আছে এফ/২.২ অ্যাপারচার যুক্ত আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং এফ/৩.০ অ্যাপারচার যুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল সেন্সরের টেলিফটো ক্যামেরা।

নামের সাথে সঙ্গতি রেখেই অপো রেনো ১০এক্স জুমে রয়েছে ১০এক্স লস-লেস হাইব্রিড জুম এবং ৫০এক্স ডিজিটাল জুম। অপো রেনো এবং অপো রেনো ১০এক্স জুম, দু’টো ফোনেই সেলফি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে একটি রাইজিং প্ল্যাটফর্মে। দু’টো ফোনেই রয়েছে সমান সমান সক্ষমতার এফ/২.০ অ্যাপারচার যুক্ত ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। লম্বা সময় ফোনকে কার্যক্ষম রাখতে অপো রেনোতে রয়েছে ৩৭৬৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি এবং অপো রেনো ১০এক্স জুম এ রয়েছে ৪০৬৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এছাড়াও ফোন দু’টিতে রয়েছে ২০ ওয়াট ক্ষমতার ভোক ৩.০ ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি।

৮গিগাবাইট র‌্যাম এবং ১২৮ গিগাবাইট স্টোরেজ যুক্ত অপো রেনো পাওয়া যাবে ৪৯,৯৯০ টাকায় এবং ৮ গিগাবাইট র‌্যাম এবং ২৫৬ গিগাবাইট স্টোরেজ যুক্ত অপো রেনো ১০এক্স জুম পাওয় যাবে ৭৯,৯৯০ টাকায়। গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীদের জন্যে থাকছে আকর্ষণীয় বান্ডেল অফার। প্রতিটি অপো রেনো এবং রেনো ১০এক্স জুম ক্রয় করলেই ক্রেতারা পাবে ৮ গিগাবাইট ৪জি ইন্টারনেট ডাটা। এছাড়াও অপো রেনো ক্রয়ের প্রথম তিন মাসের জন্যে ডিজিটাল কন্টেন্ট প্ল্যাটফর্ম বায়োস্কোপ ব্যবহার করতে প্রতিটি ৫ গিগাবাইটের ৩০ দিন মেয়াদী প্যাকেজ পাবেন মাত্র ২৫ টাকায়।

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিসার, ৫ এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি।

২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‌্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোণ ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো। ২০১৮ সালে ‘ফাইন্ড এক্স’ নিয়ে আসার মাধ্যমে অপো প্রবর্তন করে আজ অবধি বাজারে থাকা স্মার্টফোনগুলোর মাঝে সর্বোচ্চ ৯৩.৮% স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতের প্যানারমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে। এছাড়াও সম্পতি ‘আর১৭’ এর মাধ্যমে অপো নিয়ে এসেছে সুপার-ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি।

মানবকণ্ঠ/এএম

 

 




Loading...
ads






Loading...