জন্মনিয়ন্ত্রণে কনডম ও পিলের বিকল্প কী?


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১২ জুলাই ২০১৯, ২০:০০

বাংলাদেশের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ১৯৭৫ সালে সক্ষম দম্পতির প্রায় ৮ শতাংশ জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহার করতেন। বর্তমানে এ সংখ্যা ৬৩ দশমিক ১ শতাংশ। গত পাঁচ বছরে জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহারের হার তেমন একটা বাড়েনি। প্রাপ্ত সরকারি ও বেসরকারি তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় জন্মনিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে দেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো খাবার বড়ি, ইনজেকশন ও কনডম। খবর- বিবিসি'র।

বাংলাদেশের শহর অঞ্চলের মতো গ্রামাঞ্চলেও নারীরাই বেশি জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহারের আওতায় আছেন। প্রজনন মাপকাঠিগুলো বিবেচনায় নিলে বাংলাদেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার দুই শতাংশের একটু বেশি।

বিশেষ করে খাবার বড়ি ও কনডম সম্পর্কে দেশে কমবেশি সব নারী পুরুষের কিছুটা হলেও ধারণা আছে বলে মনে করছেন পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের চেয়ারম্যান ড: মো: আমিনুল হক বলছেন মূলত সহজলভ্যতার কারণেই খাবার বড়ি ও কনডম এতো জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

'দুটিই সহজলভ্য এবং দুটির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখন নেই বললেই চলে। আগে খাবার বড়ি নিয়ে টুকটাক যেসব সমস্যা হতো এখন যথেষ্ট ভালো মানের পিল বাজারে থাকায় নারীরা স্বচ্ছন্দে তা ব্যবহার করতে পারছেন।

ড: মো: আমিনুল হক বলেন, স্থায়ী পদ্ধতিগুলো নারী পুরুষ কারও কাছেই গ্রহণযোগ্য হয়নি সামাজিক বাস্তবতা, শিক্ষার অবস্থা ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কারণে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads




Loading...